মেইন ম্যেনু

হাত দিয়ে খাওয়া কি উপকারী?

আমাদের লাইফস্টাইলের নানাদিকেই পশ্চিমা ফ্যাশন অনুকরণ করতে ভালোবাসি। তাদের মতো চলা, কথা বলা, এমনকি খাবার খাওয়াও! হাতে মেখে খাবার খাওয়া বাঙালির সব সময়ের অভ্যাস হলেও পশ্চিমাদের দেখাদেখি ছুরি-চামচের ব্যবহারেই অভ্যাস্ত হয়ে উঠছেন অনেকেই। তাতে নিজের ভেতরে বেশ একটা অভিজাত ভাব আসে! কিন্তু গবেষকরা বলছেন ভিন্ন কথা!

আমেরিকান হেলথ সায়েন্সের বিজ্ঞানীরা চামচ বাদ দিয়ে হাতের পাঁচ আঙুলেই ভরসা রাখতে বলছেন। তাদের মত অনুযায়ী, প্রতিদিন হাতে করে খাবার খাওয়ার বেশকিছু স্বাস্থ্যকর দিক আছে। চামচে করে খেলে এসব উপকার মেলে না।

হাতে করে খাওয়ার উপকারিতা জানলে অনেকেই আর চামচে খেতে রাজি হবেন না। হাত ব্যবহার করে খেলে শুধু মানসিক আরাম হয় এমনই নয়, এর সঙ্গে যুক্ত হয় বেশ কিছু শারীরিক উপকারও-

হাত দিয়ে খেলে খাওয়ার সময় একাধিক পেশীর সঞ্চালন হয়। চামচ দিয়ে খাওয়ার ক্ষেত্রে এই পেশী সঞ্চালন এতটা পরিমাণে হয় না। খাওয়ার সময় যত বেশি পেশী সঞ্চালন হবে, তত রক্ত সঞ্চালন বেশি হবে শরীরে, খাবার হজমেও সুবিধা হবে।

হাত দিয়ে খাওয়ার সময় আমাদের আঙুলের মাধ্যমেই মস্তিষ্কের বার্তা পাকস্থলীতে গিয়ে পৌঁছায়। ফলে বিপাকক্রিয়া উন্নত মানের হয়।

জার্নাল অব ক্লিনিক্যাল নিউট্রিশনের রিপোর্ট অনুযায়ী, চামচ দিয়ে খেলে ধাতুর স্পর্শ পাওয়ায় স্বাদকোরকের পুরোটা কার্যকর হয় না। এছাড়া রক্তে শর্করা নিয়ন্ত্রণকারী হরমোনও কম ক্ষরিত হয়।

হাত দিয়ে খাওয়ার সময় হাতের ছোঁয়া জিভে লাগায় স্বাদকোরক বেশি উদ্দীপ্ত হয়, ফলে খাবার বেশি স্বাদু লাগে ও মানসিক তৃপ্তি ঘটে।

হাত দিয়ে খাবার খেলে খাবার ঠান্ডা না গরম বোঝা যায়, তাই খাওয়ার সময় সাবধানতা অবলম্বন করা যায়।



মন্তব্য চালু নেই