মেইন ম্যেনু

হিজাব পরে শিকার করে আল্লাহকে স্মরণ করেন এই মহিলা

তিনি মুসলিম মহিলা, হিজাব পরেন। তার উপর ৪ সন্তানের মা। এমন মহিলা হয়ে বন্যপশু শিকার? আশ্চর্য বিষয়। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার কাদেজা আসাদের কাছে এটাই সত্য। ৩৬ বছরের এই মহিলা সেটাই করেন।

কাদেজা একজন সিঙ্গল মাদার। ছাগল, খেঁকশিয়াল, খরগোশ, হরিণ শিকার করেন তিনি। তবে শুধু শিকারেই থেমে থাকেন না কাদেজা। শিকার করা পশুর মাংস তিনি নিজের ছেলেমেয়েদের রেঁধে খাওয়ান। সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে তিনি একথা জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, প্রতিবার শিকার করার আগে তিনি আল্লাহকে স্মরণ করেন। তারপর ট্রিগার চালান। মনে মনে বলেন, “খাবারের জন্য আল্লাহ, তোমাকে ধন্যবাদ।” শিকারের পরও তিনি আল্লার স্মরণ করেন।

নিজের শিকারের অভিজ্ঞতার কথাও শেয়ার করেছন তিনি। বলেছেন, শিকারের পরে তিনি সেই পশুগুলিকে ধরে এক কোপে তাদের মাথা ধড় থেকে আলাদা করে দেন। “এ এক অদ্ভুত অনুভূতি। এটা খুশি নয়, কৃতজ্ঞতা।” জানিয়েছেন কাদেজা।

শিকার তার প্যাশন। শিকারি হিসেবে নিজেকে পরিচয় দিতে তিনি গর্ববোধ করেন। পশুদের তিনি “আশীর্বাদ” মনে করেন। “কখনও কখনও আমি ওদের (পশুদের) দেখি। কি চমত্কার প্রাণী।” বলেন তিনি।

নিজের ছেলেমেয়েকেও শিকার শেখাচ্ছেন কাদেজা। তিনি জানিয়েছেন, তার ছেলে পরের বছর ১২-এ পড়বে। সে বড় হয়ে শুটার হতে চায়। তিনি তার ছেলেমেয়েদের শেখাতে চান, জীবনে সবকিছু কষ্ট করে পেতে হয়, খাবারও।






মন্তব্য চালু নেই