মেইন ম্যেনু

২০১৮ সালের সবচেয়ে শক্তিশালী পাসপোর্ট!

পৃথিবীতে কোন দেশের পাসপোর্ট কতটা শক্তিশালী তা নির্ভর করে ওই পাসপোর্ট দিয়ে কয়টি দেশে ভিসা ছাড়া যাওয়া যায় তার উপর। ভিসা ছাড়া যাওয়া বলতে বোঝায় ‘অন এরাইভাল ভিসা’। অর্থাৎ, অগ্রিম ভিসা না করে শুধু টিকিট নিয়েই চলে যাওয়া যায় একটি দেশে। সেই দেশের বন্দর থেকে ভিসার যাবতীয় কাজ সারা হয়।

এখানে বলে রাখা ভালো যে বাংলাদেশর পাসপোর্টও বেশ শক্তিশালী। কারণ, বাংলাদেশের পাসপোর্ট নিয়ে আপনি পৃথিবীর ৪০টিরও বেশি দেশে অন এরাইভাল ভিসায় যেতে পারবেন।

প্রসঙ্গে আসা যাক। ২০১৮ সালের জন্য পৃথিবীর সবচেয়ে শক্তিশালী পাসপোর্টের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। হেনলি পাসপোর্ট ইনডেক্স নামের একটি প্রতিষ্ঠান এই নাম ঘোষণা করেছে। এই তালিকায় শীর্ষে যে দেশটি আছে সেই দেশটির নাগরিকরা পৃথিবীর ১৭৭টি দেশে বিনা ভিসায় ভ্রমণ করতে পারেন। গত বছরের শেষ পর্যন্ত সে দেশটিই তালিকায় শীর্ষস্থান দখল করে ছিল। গত বছর পর্যন্ত ১৭৬টি দেশে অন এরাইভাল প্রবেশাধিকার নিয়ে দেশটি তালিকায় শীর্ষস্থান দখল করে ছিল। আর এই ২০১৮-তে আরো একটি দেশ বেড়ে তা ১৭৭টিতে পরিণত হওয়ায় শক্তিশালী পাসপোর্টের দৌড়ে দেশটি তার অবস্থান পাকাপোক্তভাবে শীর্ষে নিয়ে গিয়েছে। তবে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বীও খুব বেশি দূরে নেই। মাত্র একটি দেশের ব্যবধানে ১৭৬টি দেশ নিয়ে পরের প্রতিদ্বন্দ্বীর অবস্থান দ্বিতীয়।

আসুন জেনেই নেই এই শক্তিশালী পাসপোর্টের দেশটির নাম কী। ১৭৭টি দেশ নিয়ে শীর্ষস্থান দখল করে থাকা দেশটির নাম জার্মানি। আর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ১৭৬টি দেশ নিয়ে দ্বিতীয় শীর্ষস্থান দখল করে থাকা দেশটির নাম সিঙ্গাপুর। শীর্ষস্থান দখল করে থাকার এই দৌড়ে দ্বিতীয় স্থানে থাকা সিঙ্গাপুর কিন্তু এক বছরে বেশ ভালোই দৌড়েছে। গত বছরেও সিঙ্গাপুরের অবস্থান ছিল তালিকার পঞ্চম স্থানে। ২০১৮ সালে তৃতীয় স্থানে আছে ৭টি দেশ। দেশগুলো হলো ডেনমার্ক, ফিনল্যান্ড, ফ্রান্স, জাপান, ইতালি, নরওয়ে, সুইডেন।

আর এই তালিকার শেষে অবস্থানকারী দেশটি হলো আফগানিস্তান। আফগানিস্তানের নাগরিকরা পৃথিবীর মাত্র ২৪টি দেশে বিনা ভিসায় ভ্রমণ করতে পারেন।



মন্তব্য চালু নেই