মেইন ম্যেনু

৭২৩ কোটি টাকার সম্পত্তির মালিক এই ‘গোমরামুখো’ বিড়াল!

উপরের ছবিতে যে বিড়ালটি দেখা যাচ্ছে এমন দেখতে বিড়াল আমরা অনেকেই দেখেছি। সামনে থেকে না দেখলেও গুগল সার্চ করে অবশ্যই চোখে পড়েছে এমন বিড়ালের ছবি। কিন্তু এই ছবিতে যে বিড়ালটিকে দেখছেন, সে কিন্তু কোন সাধারণ বিটাল নয়। সে রীতিমতো তারকা। ইনস্টাগ্রামে তার ফলোয়ারের সংখ্যা ২৪ লাখ। নাম টার্দার সস।

নেট দুনিয়ায় বেশ জনপ্রিয় টার্দার। অনেকেই একে ‘গ্রাম্পি ক্যাট’ বা গোমরামুখো বিড়াল বলেও চেনেন। বিড়ালটির অদ্ভুত মুখোভঙ্গির কারণেই এই নামকরণ হয়েছে টার্দারের। সারাক্ষণই তার মুখটা কেমন যেন গম্ভির। কখনই তার মুখোভঙ্গিতে কোনও পরিবর্তন দেখা যায় না। আর টার্দারের এই গোমরামুখই তার বিপুল জনপ্রিয়তার কারণ।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউ জার্সির মরিসটাউনের বাসিন্দা টার্দারের জন্ম ২০১২ সালের ৪ এপ্রিল। জন্মের পাঁচ মাসের মাথায় টার্দারের একটি ছবি নেট দুনিয়ায় বেশ ভাইরাল হয়ে যায়। টার্দারের সেই ছবিটি তুলেছিলেন মরিসটাউনের বাসিন্দা মার্কিন যুবতী (টার্দারের মালিক) তবাথা বুন্দেসেনের ভাই ব্রায়ান বুন্দেসেন। সেই থেকে শুরু।

বর্তমানে ফেসবুকে ‘গ্রাম্পি ক্যাট’ টার্দারের ফলোয়ারের সংখ্যা ৮৬ লাখ, টুইটারে প্রায় ১৫ লাখ আর ইনস্টাগ্রামে এর ফলোয়ারের সংখ্যা ২৪ লাখ। আর তার মোট সম্পত্তির পরিমাণ প্রায় ৯৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার যা টাকার হিসাবে ৭২৩ কোটি টাকার সমান। সারা বছরই অসংখ্য বিজ্ঞাপনী ফটোশ্যুটে ব্যস্ত থাকে টার্দার। এই সব বাণিজ্যিক ফটোশ্যুট আর সোশ্যাল মিডিয়া থেকে প্রচুর অর্থ উপার্যন করে চলেছে সে।

সম্প্রতি একটি সম্পত্তি সংক্রান্ত মামলায় (যা ২০১৫ সাল থেকে চলছিল) ৭ লক্ষ মার্কিন ডলার জিতেছে টার্দার সস। কিন্তু তা সত্ত্বেও মুখে হাসি ফোটেনি ‘গ্রাম্পি ক্যাট’ টার্দারের। কারণ যে এমনই।



মন্তব্য চালু নেই