শিরোনাম:

অদ্ভূত কাণ্ড, স্বামীর গলায় শিকল বেঁধে বের হলেন রাস্তায়!

ইতোমধ্যে এসে গিয়েছে করোনার ভ্যাকসিন। তা সত্ত্বেও করোনার নতুন স্ট্রেন নিয়ে আতঙ্ক বাড়ছেই। বিশ্বের বহু দেশে নতুন করে জারি হয়েছে লকডাউন। কঠোর হয়েছে করোনাভাইরাস সংক্রান্ত বিধিনিষেধ।

এই পরিস্থিতিতে বাইরে ঘোরার জন্য অদ্ভুত কাজ করে বসলেন কানাডার এক নারী।

নিজের স্বামীকেই কুকুরের মতো শিকল দিয়ে বেঁধে রাস্তায় ঘুরলেন! হ্যাঁ, শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি। নেটদুনিয়াতেও রীতিমতো ভাইরাল এই ছবি। তবে এই কাণ্ড করে রেহাই পাননি তিনি।

ওই নারী এবং তার স্বামীকে ৩ হাজার ডলার জরিমানাও দিতে হয়েছে।

জানা গেছে, ঘটনাটি কানাডার কুইবেক শহরের। যেখানে নতুন করে করোনা সংক্রমণ চিন্তা বাড়িয়েছে স্থানীয় প্রশাসনের। ফলে রাত আটটার পর সেখানে জারি থাকছে জরুরি অবস্থা।

তবে এই সময় যে কেউ নিজের পোষা কুকুরকে নিয়ে রাস্তায় ঘুরতে বের হতে পারেন, সেক্ষেত্রে ছাড় আছে। অভিযুক্ত নারী বাইরে বের হওয়ার জন্য ফন্দি করেন। আর তাতেই এমন কাণ্ড! স্বামীর সঙ্গে বাইরে বের হওয়ার জন্য তাকেই কুকুরের শিকল পরিয়ে দু’জনে রাস্তায় ঘুরতে বের হন।

শেষরক্ষা অবশ্য হয়নি। এক পুলিশ কর্মকর্তা ওই নারীকে আটক করায় সব ফাঁস হয়ে যায়।

এ ধরনের কাজের জন্য তাকে এবং তার স্বামীকে ১৫০০ ডলার করে জরিমানা করা হয়।

তবে জানা গেছে, জরিমানা হওয়ার পরও দু’জনেই নাকি খুশি মনে তা দিয়ে দিয়েছেন। পাশাপাশি এও জানান, করোনার কারণে জারি হওয়া জরুরি অবস্থার জন্যই তারা এমন কাজ করেছেন। আপাতত সোশ্যাল মিডিয়ায় এই খবর ভাইরাল। ওই নারীর এমন কাণ্ড দেখে অবাক নেটিজেনরা।
সূত্র: ডেইলি মেইল, ইভিনিং স্ট্যান্ডার্ড, মাদারশিপ



মন্তব্য চালু নেই