অসহায় ৩০ পরিবারের পাশে ‘সিআরসি’ বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষার্থীরা

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সরকার ঘোষিত লকডাউনে কর্মহীন হয়ে পড়েছে অসংখ্য শ্রমজীবী মানুষ। অসহায় এসব মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) একঝাঁক শিক্ষার্থীরা। তারা শুক্রবার (৩০ এপ্রিল) বিকালে গোপালগঞ্জ শহরের আশেপাশের অসহায় ও হতদরিদ্র ৩০ টি পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা প্রদান করেছে।

কাম ফর রোড চাইল্ড (সিআরসি) নামের সংগঠনের ব্যানারে শিক্ষার্থীরা আসন্ন ঈদকে সামনে রেখে করোনা ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে এক সপ্তাহের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন। প্রতিটি পরিবারের জন্য খাদ্যসামগ্রীর মধ্যে ছিল ৫ কেজি চাল, ১ কেজি ডাল, ১ লিটার তেল, ১\২ কেজি চিড়া, ২.১৫০ কেজি আলু, ১ প্যাকেট লবণ, ১ কেজি চিনি ও ১ প্যাকেট সেমাই।

এ সম্পর্কে সংগঠনটির বশেমুরবিপ্রবি শাখার সভাপতি মোঃ মাসুকুর রহমান বলেন, “করোনার এই মহামারিতে চলমান লকডাউনে ছিন্নমূল, খেটে-খাওয়া মানুষগুলোর অসহায়ত্ব তীব্র থেকে তীব্রতর হয়ে উঠেছে। এই দূর্দশাকে কিছুটা প্রশমিত করতে আমরা ৩০টি পরিবারকে এক সপ্তাহের জন্য, আট ধরনের খাদ্যসামগ্রীর ব্যাবস্থা করে তাদের দ্বারে পৌঁছে দিয়েছি। আমি কাছ থেকে তাদের কষ্ট অনুভব করা একজন সাধারণ শিক্ষার্থী হিসেবে, আর্থিকভাবে সচ্ছল এমন শ্রেণীর বিবেকবান মানুষকে আহ্বান করবো, এই সংকটময় পরিস্থিতিতে তাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর জন্য।”

প্রসঙ্গত, ‘কাম ফর রোড চাইল্ড’ নামক পথশিশু বিষয়ক সংগঠনটি প্রতিবছর রমজানে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের নিয়ে ইফতারের আয়োজন করে থাকে। এ বছর করোনা মহামারি এবং সারাদেশে চলমান লকডাউনের কারণে ইফতারিতে এক বেলা আহারের পরিবর্তে তারা মানবেতর জীবনযাপন করতে থাকা নিম্ন আয়ের পরিবারের পাশে খাদ্য সহায়তা নিয়ে দাঁড়িয়েছে।

“থেকে একসাথে যুক্ত, করবো পৃথিবী পথশিশুমুক্ত” স্লোগান নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে এই সংগঠনটি। শিশুদের নিয়ে কাজ করার পাশাপাশি সংগঠনটি শীতার্থদের সহযোগিতা, পথশিশুদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ, সুবিধাবঞ্চিতদের আর্থিক সাহায্য প্রদান, প্রতি ঈদে নতুন পোশাক বিতরণ, শিক্ষা উপকরণ বিতরণ, নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদসহ নানা ধরনের সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবীমূলক কাজ করে থাকে।



মন্তব্য চালু নেই