শিরোনাম:

আগামী বাজেট হবে আমার জীবনের শ্রেষ্ঠ উপহার : অর্থমন্ত্রী

আগামী ২০১৭-১৮ অর্থবছরের জাতীয় বাজেট হবে আমার জীবনের শ্রেষ্ঠ উপহার। এ বাজেট হবে চার লাখ কোটি টাকার উপরে। বাজেটে প্রবৃদ্ধি ধরা হবে ৭ দশমিক ৪ শতাংশ। এ বাজেটে করের চাপ থাকবে। ফলে জনজীবনে এর ইতিবাচক প্রভাব পড়বে। সেক্ষেত্রে সরকারের উদ্যোগ থাকবে মানুষের জন্য সবচেয়ে ভাল কিছু করার বলে মন্তব্য করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সচিবালয়ে পত্রিকা ও টেলিভিশনের সম্পাদকদের সাথে প্রি-বাজেট বৈঠকে তিনি এ কথা বলেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন দৈনিক সমকালের সম্পাদক গোলাম সারোয়ার, প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান, ডেইলি স্টারের সম্পাদক মাহফুজ আনাম, আমাদের অর্থনীতির সম্পাদক নাঈমুল ইসলাম খান, চ্যানেল আই-এর ডিরেক্টর অব নিউজ শাইখ সিরাজ, দৈনিক ভোরের কাগজের সম্পাদক শ্যামল দত্ত, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান, অর্থ বিভাগের সিনিয়র সচিব হেদায়েতুল্লাহ আল মামুনসহ সংশ্লিষ্ট বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে অর্থমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে মাত্র ৩২ হাজার মানুষ ভ্যাট দেয়। আগামী ৫ বছরের মধ্যে ভ্যাট দাতার সংখ্যা ৫ লাখে উন্নিত করতে চাই। পদ্মা সেতুর কাজ ২০১৮ সালেই শেষ হবে। তবে রেলসেতুর কাজ কিছুটা বাকি থাকবে। বাজেটে সরকারের মেগা প্রকল্পগুলো সম্পর্কে আলাদা পুস্তক প্রকাশিত হবে। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সপ্তম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা অনুযায়ী আগামী বছর জিডিপির প্রবৃদ্ধি ধরা হবে ৭ দশমিক ৪ শতাংশ। তবে চলতি অর্থবছর প্রবৃদ্ধি অর্জিত হবে ৭ দশমিক ১ শতাংশ।

বৈঠকে এনবিআর চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান জানান, চলতি বছরে শেষে রাজস্ব আদায়ের প্রবৃদ্ধি অর্জিত হবে ২০ শতাংশ। বর্তমানে টিআইন ২৬ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। বছর শেষে এ সংখ্যা দাঁড়াবে প্রায় ৩০ লাখ। যা গতবছরের প্রায় দ্বিগুন। রাজস্ব আদায়ের এই হার আগামী বছরের ৩০ শতাংশ নির্ধারণ করা হবে বলে জানান অর্থমন্ত্রী। তিনি বলেন, রাজস্ব বৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে এনবিআর এর দক্ষতা বৃদ্ধির পাশাপাশি লোকবল বৃদ্ধি করা হয়েছে। বর্তমান রাজস্ব বোর্ডের বৃদ্ধি করা জনবলের পরিমান গতবছরের দ্বিগুন হয়েছে। চলতি বছরের এডিপি’ কোন ছাট-কাট হবে না। তবে ৩ লাখ ৪০ হাজার কোটি টাকার বাজেট রিভাইজ করে ৩ লাখ ১৮ হাজার কোটি দাঁড়াবে।

আগামী বছর ইতিবাচক চমক থাকবে জানান অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। তবে কি চমক থাকবে তা বাজেট ঘোষণাতেই জানাবেন। তবে ওই বাজেটের শক থাকবে রাজস্ব আদায়।