শিরোনাম:

আদালতের ভার্চুয়াল শুনানিকালে সিগারেট হাতে বিছানায় অর্ধনগ্ন নারী বিচারক!

ঘটনাটি কলম্বিয়ার। সেখানে জুম কলে আদালতের শুনানি চলার সময় অর্ধনগ্ন অবস্থায় বিছানায় শুয়ে সিগারেটের মাধ্যমে মাদক নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক নারী বিচারকের বিরুদ্ধে। এর জেরে বরখাস্ত করা হয়েছে তাকে। ৩৩ বছর বয়সী ওই নারী বিচারকের নাম ভিভিয়ান পোলানিয়া। তার এমন কাণ্ড সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।

খবর ডেইলি মেইলের।

জানা গেছে, পেশার বাইরে তিনি ফ্যাশন, ট্যাটুতে মগ্ন থাকেন। এছাড়া সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট করেন নগ্ন-অর্ধনগ্ন ছবি। ব্যক্তি জীবনে একজন মানুষ তার পছন্দের যেকোনো কাজ করতে পারে। কিন্তু বিচারকের মতো পদে থেকে কোনো মামলার শুনানিতে বসে ধূমপান ও অর্ধনগ্ন হওয়া মোটেই সমীচীন নয়। যে কারণে ভিভিয়ান পোলানিয়াকে তিন মাসের জন্য বরখাস্ত করা হয়েছে।

৩৩ সেকেন্ডের ভাইরাল হওয়া সেই ভিডিওতে দেখা গেছে, যেখানে নিজ রুমে শুয়ে রয়েছেন বিচারক ভিভিয়ান পোলানিয়া। এসময় তিনি সিগারেটের মাধ্যমে মাদক গ্রহণ করছিলেন। এ সময় আদালতের প্রসিকিউটার পোলানিয়াকে তার ক্যামেরা চালু বলে জানান। তাৎক্ষণিক ক্যামেরা বন্ধ করে দেন পোলানিয়া। কিন্তু শুনানি চলমান থাকে।
এ ঘটনায় ভিভিয়ান পোলানিয়ার বিরুদ্ধে এক আইনজীবী কলম্বিয়ার ন্যাশনাল কমিশন অব জুডিশিয়াল এথিক্সের কাছে লিখিত অভিযোগটি করেছেন। পরে কমিশন এক বিবৃতিতে পোলানিয়াকে বরখাস্তের কথা জানায়।

বিবৃতিতে বলা হয়, পোলানিয়ার বিরুদ্ধে বরখাস্তের আদেশ আগামী বছরের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত কার্যকর থাকবে। ঘটনাটি নিয়ে আত্মপক্ষ সমর্থন করেছেন বিচারক পোলানিয়া। তার দাবি, শুনানি চলাকালে তিনি বিছানায় শুয়েছিলেন। কারণ তিনি উদ্বেগে ভুগছিলেন।