প্রধান ম্যেনু

ইতালিতে করোনাভাইরাসে ১৩ চিকিৎসকের মৃত্যু

ইতালিতে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত ১৩ চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবারও বারগামোর কোমো শহরের কাছে দুই চিকিৎসক মারা গেছেন।

ইতালীয় বার্তা সংস্থা এএনএসএর বরাতে এএফপির খবরে এমন তথ্য জানা গেছে। নিজেদের সাধারণ জ্ঞান ব্যবহার করে সবাইকে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করতে পরামর্শ দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী গুইসেপ্পি কোন্টি।

তিনি বলেন, আমরা কোনো কিছুকেই অবজ্ঞা করছি না। পরিস্থিতির চরম অবনতির কথা বিবেচনা করেই পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে।

ইতালিতে এখন পর্যন্ত দুই হাজার ৬২৯ স্বাস্থ্যকর্মী কোভিড-১৯ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

বৈশ্বিক মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেয়া চিকিৎসকদের নিরাপত্তা নিয়ে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। কারণ এসব চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা নিয়মিতভাবেই রোগীদের সংস্পর্শে আসছেন।

গত আট দিনে আক্রান্ত চিকিৎসকদের সংখ্যা দেড় হাজার বেড়েছে। এদিকে করোনাভাইরাস সংক্রমণে ইতালিতে প্রথম মৃত্যুটি ঘটেছিল গত ২১ ফেব্রুয়ারিতে, তখন চীনে মৃত্যুর সংখ্যা ছিল ২৩০০-এর বেশি।

চীনে ক্রমান্বয়ে পরিস্থিতির উন্নতি ঘটলেও বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে ইউরোপের দেশটি। প্রথম মৃত্যুর এক মাস না গড়ানোর আগেই ইতালিতে মৃত্যুর সংখ্যা ছাপিয়ে গেছে চীনকে। অথচ ইতালিতে প্রথম মৃত্যু ঘটেছিল চীনে মৃত্যুর দেড় মাসের বেশি সময় পর।

বৃহস্পতিবার ইতালির কর্মকর্তা দেশটিতে আগের ২৪ ঘণ্টায় ৪২৭ জনের মৃত্যুর খবর দিয়েছে।

এই সংখ্যা নিয়ে ইতালিতে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে তিন হাজার ৪০৫ জনে। অন্যদিকে বৃহস্পতিবার নাগাদ চীনে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ হাজার ২৪৫ জন।

গত বছরের ডিসেম্বরের একেবারে শেষ দিকে চীনের হুবেইপ্রদেশের উহান শহরে প্রথম নতুন ধরনের এই করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঘটে। অন্য প্রদেশগুলোতে দ্রুত ছড়িয়ে যাওয়ার পর ভিন্ন দেশেও ভাইরাস সংক্রমণ দেখা দেয়।

তখন এই ভাইরাসের নাম দেয়া হয় নভেল করোনাভাইরাস, আর এর ফলে সৃষ্ট রোগ নাম পায় কোভিড-১৯, যার লক্ষণ জ্বর, মাথাব্যথা ও শ্বাসজনিত সমস্যা।



মন্তব্য চালু নেই