মেইন ম্যেনু

উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করতে গিয়ে প্রাণ দিলেন যুবক

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করতে গিয়ে বখাটেদের হাতে প্রাণ দিয়েছেন রমজান (২০) নামের এক যুবক।

গতকাল বুধবার বিকেলে ভৈরবের মেঘনা নদীর ওপর নির্মিত সৈয়দ নজরুল ইসলাম সড়ক সেতুর নিচে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ওই এলাকায় আসা দূর-দূরান্তের দর্শনার্থীদের মাঝে আতঙ্ক দেখা দেয়।

নিহত রমজান নরসিংদী সদর উপজেলার নজরপুর ইউনিয়নের চম্পক নগর গ্রামের মুজিব সরকারের ছেলে। মুজিব সরকারের তিন মেয়ে ও এক ছেলের মধ্যে রমজান ছিল সবার ছোট।

ভৈরব থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আব্দুস সালাম জানান, রমজানের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অপরাধীদের শনাক্তে পুলিশের একাধিক দল মাঠে কাজ করছে।

নিহত রমজানের বন্ধুদের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, বুধবার বিকেলে রমজানসহ কয়েক বন্ধু ভৈরবের মেঘনা নদীর তীরে বেড়াতে আসেন। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে সৈয়দ নজরুল ইসলাম সড়ক সেতুর পশ্চিম দিকের সিঁড়ির নিচে তাঁরা হাঁটাহাটি করছিলেণ। এ সময় সেখানে বখাটেরা কয়েকজন তরুণীকে উত্ত্যক্ত করছিল।

ভুক্তভোগী তরুণীরা বিষয়টি রমজান ও তাদের বন্ধুদের জানায়। তখন তাঁরা এগিয়ে গিয়ে ঘটনার প্রতিবাদ করে। এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি এবং একপর্যায়ে হাতহাতির ঘটনা ঘটে। বখাটেরা তখন তাদের আরো লোকজনকে ডেকে আনে।

পরিস্থিতি বেগতিক দেখে রামজানকে ফেলে রেখে তাঁর বন্ধুরা নিজেদের মতো করে দৌড়ে পালিয়ে যায়। তখন বখাটেরা রমজানকে একা পেয়ে প্রচণ্ড মারধর করে এবং একপর্যায়ে এলোপাথাড়ি ছুরিকাঘাত করে। পরে স্থানীয় লোকজন গুরুতর আহত অবস্থায় রমজানকে ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

রমজানের বন্ধুরা ভৈরব থানায় গিয়ে এ ঘটনা জানায়। তখন পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে।



মন্তব্য চালু নেই