করোনাকালে মানুষের ঢল, বাধ্য হয়ে ফেরি বন্ধ

শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। সামাজিক দূরত্ব না মেনে ঈদে ঘরমুখো মানুষের অব্যাহত ঢল নামায় বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

বিআইডব্লিউটিসির সহকারী মহাব্যবস্থাপক মো. শফিকুল ইসলাম জানান, স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় কথা বলে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

সোমবার (১৮ মে) বিকেল ৩টা থেকে বিআইডব্লিউটিসির চেয়ারম্যানের নির্দেশে এ নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। ঘরমুখো মানুষজনের ঢলে পুরো এলাকা জনসমুদ্রে পরিণত হচ্ছিল। যা করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকি অনেক বৃদ্ধি পায়। তাই প্রশাসনের সহযোগিতায় বিকেল ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

অন্যদিকে জনসাধারণকে এ নৌরুটে চলাচলের জন্য রওনা না হতে অনুরোধ করা হয়েছে। তবে শিমুলিয়া ঘাটে এখন ২০০ ট্রাক এবং ছোট আকারের ৫০টি যান পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে। আটকা পড়া এ যানগুলো পার করার ব্যাপারে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন জানিয়েছেন, সার্বিক পরিস্থিতির কারণেই করোনা সংক্রমণ রোধে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।
২৬ মার্চ থেকে এ নৌরুটে লঞ্চ সিবোটসহ সব ধরনের নৌ চলাচল বন্ধ রয়েছে।



মন্তব্য চালু নেই