করোনার মধ্যেই প্রেমিকের বাড়িতে ৩ দিন ধরে অনশনে কিশোরী

করোনোভাইরাসের মহামারি উপেক্ষা করে সিরাজগঞ্জে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে তিন দিন ধরে অনশন করছে সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী ইতি খাতুন (১৩)। বিয়ে না করলে আত্মহত্যার হুমকি দিয়ে তাড়াশ উপজেলার মাগুড়াবিনোদ ইউনিয়নের হামকুড়িয়া গ্রামের জালালপুর পাড়ায় মো. আব্দুল ওহাব আলীর বাড়িতে গত রোববার থেকে অনশন করছে সে। ওই কিশোরী একই গ্রামের মো. এলবাস আলীর মেয়ে।

স্থানীয়রা জানান, হামকুড়িয়া গ্রামের মো. আব্দুল ওহাব আলীর ছেলে মনিরুল ইসলামের (১৮) সঙ্গে ১ বছর ধরে মোবাইল ফোনে একই গ্রামের মো. এলবাস আলীর মেয়ে ইতির প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। সম্প্রতি তাদের প্রেমের সম্পর্ক গভীর হয়ে উঠলে তারা বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন জায়গায় ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক স্থাপন করে। এই অবস্থায় কিশোরী প্রেমিকা ইতি তাকে বিয়ের জন্য চাপ দিলে প্রেমিক মনিরুল টালবাহানা করতে থাকে। এতে নিরুপায় হয়ে গত রোববার মনিরুলের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অনশন শুরু করে ইতি।

অনশনরত প্রেমিকা ইতি খাতুন কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, ‘হয় বিয়ে, না হয় মরণ।’

অপরদিকে প্রেমিক মনিরুলের বাবা মো. আব্দুল ওহাবের সঙ্গে কথা বললে তিনি বলেন, ‘মেয়েকে আদরের সাথেই রেখেছি। ছেলে পলাতক রয়েছে, গ্রামবাসী যে সমাধান দেন তা মেনে নেব।’

এ প্রসঙ্গে তাড়াশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহবুবুল ইসলাম বলেন, ‘অনশনরত মেয়ের অভিভাবকরা থানায় এসেছিলেন। তারা মামলা করলে আমরা আইনগত ব্যবস্থা নেব।’



মন্তব্য চালু নেই