করোনায় বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড টেস্ট সিরিজ স্থগিত

কোভিড-১৯ মহামারী পরিস্থিতিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে নিজেদের মাটিতে বাংলাদেশের দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ স্থগিত করা হয়েছে। উভয় দেশের ক্রিকেট বোর্ডের মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে বিসিবির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

সূচি অনুযায়ী, চলতি বছরের আগস্ট-সেপ্টেম্বরে কিউইদের বিপক্ষে ঘরের মাঠে টেস্ট সিরিজটি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল টাইগারদের। ম্যাচ দুটি আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নসশিপের অন্তর্ভুক্ত।
মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে সিরিজের স্থগিতাদেশের কথা নিশ্চিত করেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী। এতে বলা হয়, কোভিড-১৯ মহামারীর বর্তমান পরিস্থিতি ও প্রস্তুতির বিবেচনায় আগস্টের দিকে পুরো একটি ক্রিকেট সিরিজ আয়োজন কঠিন হবে। সেই সঙ্গে খেলোয়াড়, সাপোর্ট স্টাফ ও অন্যান্য কর্মকর্তার স্বাস্থ্যঝুঁকির ব্যাপারটিও বিবেচনায় নেয়া হয়েছে।

‘বর্তমান পরিস্থিতিতে বিসিবি ও এনজেটসি অনুধাবন করেছে যে, সিরিজ পিছিয়ে দেয়াটাই সর্বোত্তম হবে। আমরা বুঝতে পারছি, এই সিদ্ধান্ত উভয় দলের খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাদের জন্য এটি হতাশাজনক খবর। দুই দেশের সমর্থকদের জন্য তো বটেই’-যোগ করেন নিজামউদ্দিন।

করোনাভাইরাস সংকটের কারণে মার্চ মাসের মাঝামাঝি থেকে সব ধরনের খেলাধুলা বন্ধ বাংলাদেশে। ক্রিকেটাররা বাসায় নিজেদের তত্ত্বাবধায়নে ফিটনেস ধরে রাখছেন।

চলমান সংকটের কারণে পাকিস্তান সফরের শেষ ধাপ আগেই স্থগিত করে বিসিবি। স্থগিত করা হয় ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের প্রথম রাউন্ডের ম্যাচও।

চলতি বছরের জুলাইয়ে বাংলাদেশ দলের শ্রীলংকা সফরে যাওয়ার কথা। বর্তমান পরিস্থিতিতে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে ওই সিরিজ নিয়েও।

এর আগে জুনে বাংলাদেশের মাটিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজও স্থগিত করা হয়।

এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের চার ক্রিকেটার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এই তালিকায় আছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা, নাজমুল ইসলাম অপু, নাফিস ইকবাল ও আশিক।

ক্লাব ক্রিকেটে খেলা আশিক অবশ্য এরই মধ্যে সেরে উঠেছেন। মাশরাফি, অপু ও নাফিস লড়ে যাচ্ছেন করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে এই লড়াইয়ে।



মন্তব্য চালু নেই