করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে চট্টগ্রাম নগরে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতে অভিযান-জরিমানা

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে দেশব্যাপী ঘোষিত লকডাউনের ষষ্ঠ দিনে চট্টগ্রাম নগরে অভিযান চালিয়েছেন জেলা প্রশাসনের একাধিক ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এসব অভিযানে জরিমানার পাশাপাশি জনসাধারণের সচেতনতার জন্য মাস্ক বিতরণ করা হয়।

শনিবার (১০ এপ্রিল) জেলা প্রশাসনের পাঁচজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নগরের বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। এসব অভিযানে ৩৭ মামলায় মোট ৬৬ হাজার ৬০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। একই সঙ্গে সচেতনতার জন্য প্রায় চার হাজার মাস্কও বিতরণ করা হয়।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, নগরের চকবাজার ও বাকলিয়া এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রতীক দত্ত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ২২ মামলায় ৫৩ হাজার ১০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন এবং খুলশী ও বায়েজিদ এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোজাম্মেল হক চৌধুরী ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে সাত মামলায় ছয় হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করেন।

একই সময়ে পতেঙ্গা, ইপিজেড ও বন্দর এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাজমা বিনতে আমিন ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে তিন মামলায় তিন হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফাহমিদা আফরোজ পাহাড়তলী, হালিশহর ও আকবরশাহ এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে দুই মামলায় এক হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন।

এছাড়া নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হুছাইন মুহাম্মদ পাঁচলাইশ ও চান্দগাও এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে তিন মামলায় দুই হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ওমর ফারুক বলেন, সরকার ঘোষিত লকডাউন বাস্তবায়নে আজ (শনিবার) নগরের বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এসব অভিযানে জরিমানার পাশাপাশি সচেতনতার জন্য মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসনের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।



মন্তব্য চালু নেই