মেইন ম্যেনু

কলারোয়া বেত্রবতী হাইস্কুলে বীর মুক্তিযোদ্ধার স্মৃতিচারণ

কামরুল হাসান, কলারোয়া (সাতক্ষীরা) : সারাদেশের মতো কলারোয়া বেত্রবতী আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের নিয়ে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা “বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মুক্তিযুদ্ধকে জানি” এ প্রতিপাদ্যকে সামনে নিয়ে সোমবার বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে এক ব্যতিক্রমধর্মী স্মৃতিচারণমূলক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

এ উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে কলারোয়া বেত্রবতী আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের মাঝে মহান মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস তুলে ধরে শিক্ষার্থীদের করা বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধা অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আব্দুর রউফ। এর আগে বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রউফকে সালাম জানিয়ে সম্মান প্রদর্শন করেন বিদ্যালয়ের স্কাউট দল।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালয়ের সভাপতি আলহাজ্ব ডাঃ আব্দুল জব্বার, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাংবাদিক রাশেদুল হাসান কামরুল, সহকারী শিক্ষক আবু বকর ছিদ্দীক, মশিউর রহমান, নাছরিন সুলতানা, তজিবুর রহমান, সাইফুল আলম, জাকিয়া পারভীন, সমীর কুমার সরকার, দেবাশীষ সরদার, রীনা রাণী পাল, নূর জাহান, আসমা খাতুন, মমতাজ, মোজাফফর হোসেন, অফিস সহকারী আমিরুল ইসলাম, ফারুক হোসেনসহ ৭ম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা। এরপর বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের আরেকটি দল মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় কলারোয়ার উত্তর মুরারীকাটি পালপাড়ায় পাকিস্তানি বর্বর বাহিনীর হাতে গণহত্যার শিকার স্বর্গীয় ব্যক্তিদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে তাঁদের বেদীতে পুস্পমাল্য অর্পণ করে।

এ সময় সেদিনের গণহত্যায় নিহত হওয়া স্বর্গীয় সতীশ পালের ছেলে লক্ষ্মণ পালের সাক্ষাৎকার গ্রহণ করে শিক্ষার্থীরা। উল্লেখ্য, ১৯৭১ সালে পালপাড়ার গণহত্যায় লক্ষ্মণ পাল হারান তাঁর পিতা সতীশ পাল ও ভাই রাম পালকে।



মন্তব্য চালু নেই