প্রধান ম্যেনু

কোটচাঁদপুরে ডাকাত ধরতে গিয়ে নিহত ১, আহত ১ : এক ডাকাত আটক

মোঃ হাবিব ওসমান, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি : ডাকাত ধরতে গিয়ে মারা গেছে বাড়ির মালিকের ভাই আহত হয়েছে একজন। বৃহস্পতিবার রাতে কোটচাঁদপুর উপজেলার রহমতপুর গ্রামে এ ঘটনা। এ সময় ধরা পড়েছে এক ডাকাত।

প্রতিবেশি তরিকুল ইসলাম ও সেলিম হোসেন জানান, বৃহস্পতিবার রাতে ১৫/১৬ জনের একটি ডাকাত দল রহমতপুর গ্রামের মন্টু মিয়ার বাড়িতে আক্রমন করে। এ সময় বাড়ির লোকজন জেগে গিয়ে ধাওয়া করেন ডাকাতদের। তাদের হাতে ধরা পড়ে এক ডাকাত। এ সময় ডাকাতরা তাকে ছাড়াতে গেলে শুরু হয় উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা। এক পর্যায় দাউদ হোসেন পড়ে গিয়ে আহত হয়। তবে তার ভগ্নিপতি শফি উদ্দিন ডাকাতদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর আহত হয়। ওই দুইজন কে উদ্ধার করে কোটচাঁদপুর হাসপাতালে নিয়ে আসার পথে মারা যায় দাউদ হোসেন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে ভগ্নীপতি শফি উদ্দিন। পরে সাবদারপুর ফাড়ির পুলিশ ডাকাত তাহাজ্জেলকে উদ্ধার করে কোটচাঁদপুর হাসপাতালে নিয়ে আসেন। বর্তমানে সে পুলিশ পাহারায় চিকিৎসাধীন রয়েছে। তাহাজ্জেল মন্ডল (সোহারব) চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর উপজেলার রায়পুর কুমার পাড়ার ভাদু মন্ডলের ছেলে। পুলিশ তাঁর কাছ থেকে ব্যবহারের মোবাইল সেটটি উদ্ধার করেছে। এ ব্যাপারে কোটচাঁদপুর হাসপাতালের ডাক্তার নাজমুস সাকিব বলেন, ডাকাত সহ তিন জনকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন এলাকাবাসী। তাদের মধ্যে দাউদ হোসেন পথের মধ্যে মারা যায়। তবে লাশের গায়ে কোন চিহৃ নাই। স্টোক জনিত কারনে মারা যেতে পারে। বাকি দুই জন চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ ব্যাপারে কথা হয় কোটচাঁদপুর থানার (ওসি)তদন্ত জয়নাল আবেদীনের সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, কি উদ্দেশ্যে তারা গিয়ে ছিল তা জানা যায়নি। তবে তাদের একজন ধরা পড়েছে। মারপিট করায় সে গুরুতর আহত হয়েছে। চিকিৎসা চলছে। ভাল হলে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে মূল ঘটনা পাওয়া যাবে। তবে দাউদ নামের একজন মারা গেছে।



মন্তব্য চালু নেই