গণভবনে বন্দিজীবন যাপন করছি: প্রধানমন্ত্রী

করোনা মহামারিতে গণভবনে বন্দিজীবন কাটাচ্ছেন বলে এবার প্রকাশ্যে জানালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি জানান, মহামারির শঙ্কায় পুরো সময়েই তিনি গণভবনেই অবস্থান করছেন।

শনিবার (৭ নভেম্বর) সকালে ৪৯তম জাতীয় সমবায় দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি এই কথা বলেন। করোনার প্রেক্ষাপটে এ বছর ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে উদযাপনের আয়োজন করা হয়েছে জাতীয় সমবায় দিবসের। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে বক্তব্য রাখেন সরকার প্রধান।

শেখ হাসিনা বলেন, পুরো বিশ্বই আজ করোনা মহামারিতে আক্রান্ত। তাই সবার উচিত স্বাস্থ্য সুরক্ষা মেনে চলা।

এ সময় নিজে সুরক্ষিত থেকে অন্যকে সুরক্ষিত রাখার আহ্বান জানান তিনি। স্বাস্থ্য সচেতনতাটুকু সবাইকেই মেনে চলার তাগিদ দিয়েছেন সরকার প্রধান।

শেখ হাসিনা জানান, করোনা মহামারির দ্বিতীয় একটা ঢেউ শুরু হয়েছে বিশ্বের অনেক জায়গায়। ইউরোপের অনেক দেশেই তো আবারো সবকিছু বন্ধ করে দিয়ে লকডাউন শুরু হয়েছে! আমরা বিষয়টাকে এখনো নিয়ন্ত্রণে রাখতে পেরেছি।

বাংলাদেশে শীতকাল শুরু হওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এখন কার্তিক মাস; সামনে শীত আরো বাড়বে। আর শীতেই কিন্তু এর প্রাদুর্ভাবটা বেড়ে যেতে পারে। কাজেই আপনাদের সবাইকে এই ব্যাপারে সুরক্ষিত থাকতেই হবে।

উল্লেখ্য, গেলো মার্চে দেশে করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার পর থেকেই স্বাস্থ্য-ঝুঁকির বিষয়টি মাথায় রেখে নিরাপত্তার ইস্যুতে গণভবনের বাইরে কোথাও দেখা যায়নি প্রধানমন্ত্রীকে। মাঝে বাজেট অধিবেশন ও জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে সংসদে বিশেষ অধিবেশনে যোগ দিয়েছিলেন শেখ হাসিনা। সেই হিসেবে প্রায় নয় মাস ধরেই তিনি অনলাইন বা ডিজিটাল পরিসরে রাষ্ট্রীয় কার্যক্রম সারছেন গণভবন থেকেই।



মন্তব্য চালু নেই