মেইন ম্যেনু

চন্দ্রপৃষ্ঠে মিলল চন্দ্রযান-২, যোগাযোগের চেষ্টা ইসরোর

চন্দ্রযান-২ এর ল্যান্ডার বিক্রমকে শনাক্ত করা গেছে বলে দাবি করেছেন ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরো।

শনিবার স্থানীয় সময় রাত ১টা ৩৮ মিনিটে শুরু হয় চন্দ্রযান-২ বিক্রমের অবতরণ প্রক্রিয়া। কিন্তু চাঁদের মাটি থেকে ২.১ কিলোমিটার ওপরে থাকার সময় বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগ হারিয়ে ফেলে ইসরোর বিজ্ঞানীরা।

রবিবার ভারতের সংবাদ সংস্থা এএনআইকে ইসরোর চেয়ারম্যান কে শিবন বলেন, বিক্রম এখন চন্দ্রপৃষ্ঠের কোন জায়গায় আছে আমরা শনাক্ত করতে পেরেছি। ল্যান্ডারের একটি থার্মাল ইমেজেও তোলা সম্ভব হয়েছে। কিন্তু বিক্রমের সঙ্গে আমরা এখনো যোগাযোগ করতে পারিনি। তবে আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি। আশা করছি, শিগগিরই আমরা বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগ করতে সক্ষম হব।

চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে কোনো যান অবতরণকারী প্রথম দেশ হিসেবে নাম লেখাতে ব্যর্থ হয় ভারত। চাঁদের বুকে নামার চূড়ান্ত মুহূর্তে চন্দ্রযান-২ বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় বিজ্ঞানীদের। তবে সেটির সঙ্গে আবার যোগাযোগ সংযোগ স্থাপনের জোর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তারা।

২২ জুলাই ১০০০ কোটি রুপির এই চন্দ্র অভিযান শুরু করে ভারত। এর আগে যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া ও চীনের চাঁদে সফল অবতরণ করে।

ইসরো চেয়ারম্যান কে সিভান চন্দ্রযান-২’কে উল্লেখ করেন ‘‘ইসরোর সবচেয়ে জটিল মিশন” বলে।

চন্দ্রপৃষ্ঠে অবতরণের পরে চাঁদের মাটিতে প্রাকৃতিক সম্পদের সন্ধান করার লক্ষ্যে কাজ করার কথা ছিল এটির। সেই সঙ্গে চাঁদে জলের অস্তিত্ব খুঁজে দেখা এবং সেখানকার ‘হাই রেজ্যুলেশন’ ছবি তুলে আনার উদ্দেশ্যও ছিল এই মিশনের।



মন্তব্য চালু নেই