মেইন ম্যেনু

ছাত্রলীগের আন্দোলনের মুখে ইবিতে নতুন প্রক্টর ড. পরেশ

শাখা ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত বিদ্রোহী গ্রুপের দাবির মুখে অধ্যাপক ড. পরেশ চন্দ্র বর্ম্মণকে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) নতুন প্রক্টর হিসেবে সাময়িকভাবে নিয়োগ প্রদান করেছে প্রশাসন। রোববার রাত ১১টার দিকে উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারী তাকে নিয়োগ দেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার দপ্তর সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা যায়, গত ৯ সেপ্টেম্বর ইলেক্ট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমানকে প্রক্টর হিসেবে নিয়োগ প্রদান করে কর্তৃপক্ষ। গত শনিবার প্রক্টর পদে যোগদান করেন তিনি।

কিন্তু রোববার ড. মাহবুবর রহমানকে অবৈধ্য ঘোষণা দিয়ে পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন শুরু করে ছাত্রলীগের বিদ্রোহী গ্রুপ। দুপুর দেড়টায় ক্যাম্পাসের দলীয় টেন্ট থেকে প্রতিবাদ মিছিল বের করে উপাচার্যের কাছে গিয়ে ড. মাহবুবর রহমানকে অপসারণের দাবি জানায় তারা।

এক পর্যায়ে ক্যাম্পাসের প্রধান ফটকে তালা লাগিয়ে অবরোধ করেন বিদ্রোহীরা। পরে প্রশাসন ভবনে গিয়ে অবস্থান নিয়ে উপাচার্যকে অবরুদ্ধ করেন। কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে কোনো সমাধান না পাওয়ায় রাতভর আন্দোলনের হুমকি দেন তারা।

এর মধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বিদ্রোহী গ্রুপের প্রতিনিধিদের সাথে কয়েক দফা বৈঠক করে। শেষে রাত ১১টার দিকে রেজিস্ট্রার স্বাক্ষরিত একটি বিবৃত প্রদান করা হয়।

বিবৃতিতে ইনফরমেশন এন্ড কমিউনিকেশন টেকনোলজি বিভাগের অধ্যাপক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা ড. পরেশ চন্দ্র বর্ম্মণকে তার নিজ দায়িত্বের অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসেবে সাময়িকভাবে প্রক্টরের দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়। এ ঘটনার পর পরিস্থিতি শান্ত হয়।

তবে অধ্যাপক ড. পরেশ বলেন, ‘আমি দায়িত্ব গ্রহণ করব কি না তা এখনো বলতে পারছি না।’



মন্তব্য চালু নেই