মেইন ম্যেনু

জাতীয় পার্টিতে দ্বন্দ্ব : যা বললেন ওবায়দুল কাদের

জাতীয় পার্টির একাংশের রওশন এরশাদকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ঘোষণাকে কেন্দ্র করে দলটিতে যে সঙ্কট সৃষ্টি হয়েছে, তাতে আওয়ামী লীগের কিছু করার নেই বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি আরও বলেন, জাপা নিয়ে মাথা ঘামানোর সময় আমাদের নেই।

শুক্রবার রাজধানীর রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে আয়োজিত ২৮ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে মাসব্যাপী জন্মদিন উদযাপন অনুষ্ঠানের উদ্বোধন উপলক্ষে আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, জাতীয় পার্টি সংসদের বিরোধী দল হলেও সেই দলের ‘অভ্যন্তরীণ বিবাদ’ নিয়ে আওয়ামী লীগের মাথা ঘামানোর মতো সময় নেই। আমরা এখন রংপুর-৩ আসনের উপনির্বাচন নিয়ে ব্যস্ত। ওই নির্বাচনের প্রস্তুতি চলছে।

আওয়ামী লীগ কারও পক্ষ নেবে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, জাতীয় পার্টির মধ্যকার টানাপোড়েন নিয়ে আওয়ামী লীগের কিছু করার নেই। এটি তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়। তাদের দলের মধ্যে আওয়ামী লীগ কারও পক্ষ নেবে না।

রংপুর-৩ আসনে উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে কাকে মনোনয়ন দেয়া হচ্ছে, জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত ১৬ জন মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন এই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য। আগামীকাল দলের চূড়ান্ত প্রার্থীর নাম প্রকাশ করা হবে।

শেখ হাসিনার দূরদর্শী রাজনীতির প্রশংসা করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, শেখ হাসিনার অপ্রতিরোধ্য উন্নয়ন-অগ্রযাত্রা বিএনপিকে রাজনৈতিক সংকটে ফেলেছে। এই সংকট বিএনপি কাটিয়ে উঠতে পারবে না। তিনি বলেন, রাজনীতি মানে অস্ত্রবাজি না, শিক্ষাগ্রহণ করে জনসেবা করা। প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রনায়ক হিসেবে বিশ্বব্যাপী সমাদৃত। অন্য রাজনীতিবিদরা পরবর্তী নির্বাচন নিয়ে ভাবেন, আর শেখ হাসিনা ভাবেন পরবর্তী প্রজন্মের কী হবে।

শেখ হাসিনা বিশ্বের আলোকবর্তিকা মন্তব্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, শুধু দল বা দেশ নয়, বিশ্বের জন্য আলোকবর্তিকা হিসেবে কাজ করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দল ও দেশের জন্য যেসব উন্নয়নকাজ করছেন, তা সঠিকভাবে জনগণের কাছে পৌঁছে দিতে আহ্বান জানান তিনি।

কর্মীদের জন্য শেখ হাসিনার ত্যাগের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, কর্মীদের জন্য শেখ হাসিনা কতটা নিবেদিত আমার অসুস্থতার সময়ে সেটি দেশবাসী দেখেছে। প্রতিটি মানুষের জন্য তিনি এমনই নিবেদিত। শেখ হাসিনা জেগে আছেন বলে দেশের মানুষ আজ শান্তিতে ঘুমাতে পারছে।

আলোচনাসভার উদ্বোধন করেন আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী। সভাপতিত্ব করেন ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট।



মন্তব্য চালু নেই