টিকার দ্বিতীয় ডোজ ৭ এপ্রিল থেকে দেয়া হবে

আগামী ৭ এপ্রিল থেকে করোনাভাইরাসের টিকার দ্বিতীয় ডোজ দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সচিবালয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

এখন পর্যন্ত ২৩ লাখ ৮০ হাজার মানুষকে টিকা দেয়া হয়েছে এবং ৩৬ লাখের বেশি রেজিস্ট্রেশন হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। বলেছেন, দেশে ৪০ বছরের ঊর্ধ্বে ৪ কোটি মানুষ আছেন। ৩ কোটি ডোজ দেবে ভারতের সেরাম আর এরইমধ্যে ২০ লাখ ডোজ উপহার দিয়েছে তারা। প্রয়োজনীয় ৮ কোটি ডোজ টিকা পেতে চেষ্টা করছে ভারত। আর যারা প্রথম ডোজ টিকা পেয়েছেন তাদের দ্বিতীয় ডোজ টিকা দেয়া শুরু হবে এপ্রিলের ৭ তারিখ থেকে।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সচিবালয়ে এ কথা জানান তিনি।

এ মাসে ৫০ লাখ ডোজ পাওয়ার কথা রয়েছে সেরামের থেকে তারা দিয়েছে ২০ লাখ। এজন্য বাকি ডোজ পেতে সেরাম ইনস্টিটিউটকে চাপ দেয়া হচ্ছে বলেও জানান মন্ত্রী। যে হারে রেজিস্ট্রেশন করছেন দেশের মানুষ সে হারে টিকা দেয়া নির্ভর করবে সেটি পাওয়ার ওপর- এ কথা জানিয়ে পরবর্তীতে এ হার কমে আসতে পারে বলেও অভিমত ব্যক্ত করেন তিনি।

জাহিদ মালেক বলেন, অগ্রাধিকার ভিত্তিতে শিক্ষক, পাইলট, বিমানবন্দর কর্মীদের টিকা দিতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সে অনুসারে কাজ চলছে। ডাবল ডোজ পাওয়ার পরও বিদেশ যেতে হলে কভিড নেগেটিভ সনদ নিয়ে যেতে হবে। শিক্ষার্থীদের মধ্যে ১৮ এর নিচে বয়স যাদের তারা টিকা পাবে না, যাদের বয়স বেশি তাদের ব্যাপারে সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী টিকা দেয়া হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, আর যেসব দেশের টিকার তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণের ক্ষমতা আছে বাংলাদেশ ওইসব দেশ থেকেই কেবল সেটি গ্রহণ করবে।



মন্তব্য চালু নেই