মেইন ম্যেনু

টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে তিন ‘রোহিঙ্গা পাচারকারী’ নিহত

কক্সবাজারের দ্বীপ উপজেলা টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে তিন যুবক নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার ভোর ৪টার দিকে উপজেলার মহেশখালিয়াপাড়া নৌঘাটে এ বন্দুকযুদ্ধ হয়।

নিহতরা হলেন- উপজেলার নয়াপাড়াস্থ গোলাপাড়া এলাকার আব্দুল শুক্কুরের ছেলে কুরবান আলী (৩০), টেকনাফ পৌরসভার কেকে পাড়া এলাকার আলী হোসেনের ছেলে আব্দুল কাদের (২৫) ও সুলতান আহমদের ছেলে আব্দুর রহমান (৩০)।

পুলিশের দাবি, নিহতরা চিহ্নিত মানবপাচারকারী। তারা রোহিঙ্গাদের সাগরপথে মালয়েশিয়ায় পাচার কাজে জড়িত ছিলেন।

টেকনাফ মডেল থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ জানান, রোহিঙ্গা পাচার মামলার আসামিদের ধরতে পুলিশ মহেশখালিয়াপাড়া নৌঘাটে অভিযানে যায়।

উপস্থিতি টের পেয়ে আগে থেকে অবস্থানরত অস্ত্রধারী মানবপাচারকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়।

এক পর্যায়ে পাচারকারীরা পিছু হটে। পরে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ তিনজনকে উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

ঘটনাস্থল থেকে ৩টি এলজি, ১৫ রাউন্ড শর্টগানের তাজা কার্তুজ ও ২০টি কার্তুজের খোসা উদ্ধার করা হয়েছে।

বন্দুকযুদ্ধে টেকনাফ থানার এএসআই সায়েফ, কনস্টেবল মং ও মো. শুক্কুর আহত হয়েছেন। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে টেকনাফ থানায় সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা করা হয়েছে বলেও জানান ওসি প্রদীপ কুমার দাশ।



মন্তব্য চালু নেই