মেইন ম্যেনু

টেস্টে অধিনায়ক মুশফিক, টি-টোয়েন্টিতে মোসাদ্দেক!

সাকিব ইস্যুতে বিসিবি ও আন্দোলনরত ক্রিকেটারদের মধ্যে সমঝোতার পাঁচদিন পরও স্বাভাবিক হয়নি ক্রিকেটাঙ্গনের পরিবেশ। যে কারণে স্বভাবতই সাকিবসহ সিনিয়র ক্রিকেটাদের নিয়ে আবারও এক টেবিলে বসতে হয়েছে বোর্ড কর্তাদের। সোমবার সন্ধ্যায় মিরপুরের বিসিবি কার্যালয়ে হওয়া ওই জরুরী বৈঠকে কি সিদ্ধান্ত হয়েছে তা জানতেই মুখিয়ে আছেন গোটা দেশের ক্রিকেট অনুরাগীরা।

এদিন সন্ধ্যায় বোর্ডে এসে নাজমুল হাসান পাপন এরই মধ্যে বোর্ড পরিচালক ও কজন সিনিয়র ক্রিকেটারদের সঙ্গে কথা বলেছেন। সেখানে আসলে কি আলোচনা হয়েছে- সে ব্যাপারে নিশ্চুপ বোর্ড পরিচালকরা।

তবে কম বেশি সবাই স্বীকার করেছেন, আলোচনা-পর্যালোচনা ও যত কথা সাকিবকে নিয়েই। সাকিব আদৌ ভারত সফরে যাবেন কি যাবেন না, তা নাকি বোর্ড সভাপতি ছাড়া অন্য পরিচালকদের কেউ জানেনও না। কারণ বাকি কারও সঙ্গেই সাকিব এ ইস্যুতে কথাও বলেননি।

তবে মুশফিক, সৌম্য ও মোস্তাফিজসহ আরও কয়েকজন ক্রিকেটার এবং হেড কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো আর সবে কাজ শুরু করা স্পিন কোচ ড্যানিয়েল ভেট্টোরিসহ কোচিং স্টাফদের সঙ্গে বিসিবি প্রধানের আলোচনায় নাকি কিছু গুরুত্বপূর্ণ কথাবার্তা হয়েছে।

সাকিব ভারত সফরে গেলে কি হবে, আর না গেলে কীভাবে দল সাজানো হবে এবং টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে ভারতের বিপক্ষে অধিনায়কত্ব করবেন কে? নাকি একাধিক কাউকে দুই ফরম্যাটের দায়িত্ব দেয়া হবে- এসব নিয়েই নাকি কথা হয়েছে।

বোর্ড পরিচালকদের কেউ একটি কথা না বললেও ভেতরের খবর- সাকিব না গেলে কীভাবে পরিস্থিতি মোকাবিলা করা যায় বা যাবে, তা নিয়েই কথা হয়েছে। সম্ভাব্য বিকল্প অধিনায়ক নিয়েও আলোচনা হয়েছে।

একটি দায়িত্বশীল সূত্রে জানা গেছে, সাকিবের বিকল্প হিসেবে টেস্টে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের পাশাপাশি এবার উচ্চারিত হয়েছে মুশফিকুর রহীমের নামও। সাকিব না গেলে টেস্ট দলের নেতৃত্ব দেবেন দুই ভায়রার যে কোনও একজন।

আর টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক পদে আসছে বড়সড় চমক! সাকিব দল পরিচালনায় না থাকলে ভাবা হচ্ছে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের নাম। সাকিব শেষ পর্যন্ত না গেলে খুব সম্ভবত মোসাদ্দেকই হতে যাচ্ছেন টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক!



মন্তব্য চালু নেই