শিরোনাম:

১৪ হাজার ইয়াবা, মোটরসাইকেল জব্দ

ডিউটি শেষে ইয়াবা পাচারকালে পুলিশ কনস্টেবল আটক

রাতের ডিউটি শেষে সকালে রেস্টের নামে ইয়াবা পাচার করতে গিয়ে কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের হাতে ইয়াবাসহ ধরা পড়লেন সিএমপির বাকলিয়া থানার কনস্টেবল মুন্সী আজিম।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কুমিল্লার দাউদকান্দি থানা থেকে ১৬ নভেম্বর তাকে আটক করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।

জানা যায়, আটককৃত কনস্টেবল মুন্সী আজিম চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের বাকলিয়া থানার বলির হাট পুলিশ ফাঁড়িতে কর্মরত ছিলেন। কিন্তু সোমবার রাতের ডিউটি শেষে ভোরবেলা অবসরের নামে ঢাকার উদ্দেশ্যে ইয়াবা পাচার করতে বের হন কনস্টেবল মুন্সী আজিম। পরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কুমিল্লা দাউদকান্দি থানায় জেলা গোয়েন্দা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।এসময় ১৪ হাজার ইয়াবা এবং সাথে রেজিষ্ট্রেশনবিহীন একটি মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বাকলিয়া থানার ওসি রাশেদুল হক “আওয়ার নিউজ বিডি” কে বলেন, ঘটনা সত্য,মুন্সী আজিম বলিরহাট পুলিশ ফাঁড়িতে কর্মরত ছিল এবং সে রাতে প্রহরীর ডিউটি শেষে ভোর ৬টার সময় রেস্টে যায়। কিন্তু দুপুর দুইটার সময় কুমিল্লার দাউদকান্দি থানা থেকে জানানো হয় বাকলিয়া থানার কনস্টেবল মুন্সী আজিম ইয়াবা সহ গ্রেপ্তার হয়েছে।

সে পূর্বেও এরকম অবসরের নামে নিরুদ্দেশ হতো কিনা বা ইয়াবা পাচার করতে যেতো কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন- না, এরকম আগে কখনো দেখি নাই শুনিও নাই। আমর জানা মতে সে বলিরহাট পুলিশ ফাঁড়িতে ১ বছর ৪ মাস কর্মরত। কিন্তু আগে কখনো এমন দেখি নাই।