মেইন ম্যেনু

ডেঙ্গু প্রতিরোধ কার্যক্রমে গিয়ে স্বাস্থ্য সহকারীর মৃত্যু

উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিদের্শে ঢাকায় ডেঙ্গু প্রতিরোধ কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করতে গিয়ে আক্রান্ত হয়ে তপন কুমার নামে মাদারীপুরের এক স্বাস্থ্য সহকারী মারা গেছেন।

বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) দুপুরে রাজধানীর বাংলাদেশ মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এ নিয়ে জেলায় ৭ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে ২০ জনের বেশি রোগী। এছাড়া জেলায় দুই শতাধিক রোগী ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন।

তপন কুমারের পরিবার ও তার সহকর্মীরা জানান, স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের ডিজি অফিসের নির্দেশে ডেঙ্গু প্রতিরোধ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে সারা দেশ থেকে ১২৬ জন স্বাস্থ্য সহকারীকে ঢাকার বিভিন্ন স্থানে স্বাস্থ্য বিভাগের প্রতিনিধি হিসেবে পাঠানো হয়। মাদারীপুর সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার কার্যালয়ের পক্ষ থেকে গত ২৯ জুলাই ৭ জনকে ঢাকায় পাঠানো হয়।

তাদের মধ্যে স্বাস্থ্য সহকারী তপন কুমারও (৪০) ঢাকায় যান। ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে প্রতিটি ওয়ার্ডে ডেঙ্গু প্রতিরোধ কার্যক্রমে যে ৭ সদস্যের টিম ছিল তাতে স্বাস্থ্য বিভাগের প্রতিনিধি হিসেবে ছিলেন তপন কুমার । ঈদের আগেরদিন অসুস্থ শরীর নিয়েই গ্রামের বাড়ি সদর উপজেলার এওজ গ্রামে আসেন তপন। এরপর ওইদিনই রোববার (১১ জুলাই) বিকেলে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি হলে ডেঙ্গু সনাক্ত হয়। পরে ১৪ আগস্ট বুধবার বিকেলে তাকে দ্রুত ঢাকায় চিকিৎসার জন্য নেয়া হয়েছিল।

বাংলাদেশ সেনেটারি ইন্সপেক্টরশিপ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি মজিবর রহমান উজ্জ্বল জানান, স্বাস্থ্য সহকারীদের মধ্যে এই ধরনের কার্যক্রম পরিচালনার জন্য যাদের সেনেটারি ইন্সপেক্টরশিপ করা আছে তাদের এবার দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তপন একই কোর্স করেছিলেন। তার মৃত্যুতে আমরা শোকাহত।



মন্তব্য চালু নেই