দাবানল থেকে ছড়াতে পারে ভয়ংকর রোগ

জলবায়ু পরিবর্তন আর পরিবেশ বিপর্যয়ের কারণে বছরের পর বছর ধরে দাবানলে পুড়ছে বনভূমি। মরছে বন্যপ্রাণি। হেক্টরের পর হেক্টর বনভূমিতে আগুন লাগায় ধোঁয়া তৈরি হচ্ছে। আগে ধারণা ছিল, এ ধোঁয়া থেকে মানুষের কোনো ক্ষতি হতে পারে না। কিন্তু সম্প্রতি গবেষণা বলছে, দাবানলেই ছড়াতে পারে ভয়াবহ সংক্রামক সব রোগ।

দাবানল থেকে ছড়াতে পারে ভয়ংকর সংক্রামক ব্যাধি। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় উঠে এসেছে এমন তথ্য। যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর বলছে, অগ্নিনির্বাপণ কর্মীরা সবচেয়ে বেশি সংক্রমণের ঝুঁকিতে আছেন এ দূষণ থেকে। বিজ্ঞানীরা আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে দাবানল থেকে সৃষ্টি হওয়া ধোঁয়ায় ক্ষতিকর প্রায় ৯০০টি ব্যাকটেরিয়া ও ছত্রাকের সন্ধান পেয়েছেন।

মস্কোর আইডাহো বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক ড. লেডা কবজিয়ার বলেন, দাবানলের ধোঁয়ার প্রাদুর্ভাব যেখানে ছিল না, সেখানে এসব অনুজীবের সন্ধান পাওয়া যায়নি। বনাঞ্চল পুড়ে যাওয়ায় ওই অঞ্চলের বাতাসে ধোঁয়ার সঙ্গে ক্ষতিকর অনুজীব মিশে যায়। ধোঁয়ায় মিশে থাকায় সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মিও এদের ধ্বংস করতে ব্যর্থ হচ্ছে।

ড. কবজিয়ার বলেন, এরইমধ্যে বেশ কিছু অনুজীব শনাক্ত করা হয়েছে, যেগুলো শ্বাসতন্ত্রের রোগ সৃষ্টি করে যেমন অ্যাজমা। এমন অনেক ধারণা আছে দাবানল থেকে ভয়ংকর স্বাস্থ্যঝুঁকির। দাবানলের লেলিহান শিখা ধ্বংস করে দিয়ে যায় আশপাশের সবকিছু, নিবিড় বনভূমি থেকে বন্যপ্রাণী। দাবানলের প্রলয়ঙ্কারী ধোঁয়া হতে পারে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া ভাইরাসের মতো জীবাণুর বাহক।



মন্তব্য চালু নেই