শিরোনাম:

নওগাঁর পোরশায় পরকীয়ার বলি হলো পত্নীতলার আল-আমিন

নওগাঁর পোরশা উপজেলার মুরশিদপুর এলাকার এক সন্তানের জননী জনৈকা শাকিলার (২০)র সাথে প্রেমের সর্ম্পকের কারণে প্রাণ গেল পার্শ্ববর্তী উপজেলা পত্নীতলার মাটিন্দর এলাকার জনৈক আল আমিন রহমান (২৫) এর।

আল-আমিনের পরিবার ও স্থানীয় চেয়ারম্যান সুত্রে জানা গেছে, পত্নীতলা উপজেলার মাটিন্দর ইউনিয়নের শিবপুর গ্রামের আবু তাহেরের পুত্র আল আমিন রহমান এর সাথে পার্শ্ববর্তি পোরশা উপজেলার মুরশিদপুর ইউনিয়নের কাকতইল গ্রামের আনোয়ারুল ইসলামের বিবাহিত মেয়ে এক সন্তানের জননী শাকিলার সাথে দীর্ঘদিন প্রেমের সর্ম্পক ছিল। এরই প্রেক্ষিতে গত সোমবার (১৫/১১/২০২১) দিবাগত রাতে আল-আমিন তার বন্ধু পোরশা উপজেলার মুরশিদপুর ইউনিয়নের মেকারপাড়া গ্রামের রহমত আলীর পুত্র মঞ্জুরুল ইসলামের সাথে শাকিলার ডাকে রাতে তার বাড়ির পাশে যায়। এসময় আল-আমিনের বন্ধু তাকে সেখানে রেখে চলে আসে। এরপর থেকে আল-আমিনের পরিবার তাকে খুজে না পেয়ে গত শুক্রবার (১৯/১১/২০২১) তারিখে পোরশা থানায় মৌখিক অভিযোগ দায়ের করলে থানা পুলিশ বিষয়টি তদন্ত শুরু করে। এরই প্রেক্ষিতে গত শনিবার পোরশা থানা পুলিশ শাকিলা ও তার স্বামী মান্দা উপজেলার এনায়েতপুর গ্রামের আহসান হাবীবের পুত্র আরস মওলা (২৯) কে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী শাকিলার বাবার বাড়ির পার্শ্ববর্তি প্রায় দেড় কিলোমিটার দূরে একটি ধান ক্ষেত থেকে আল-আমিনের লাশ থানা পুলিশ উদ্ধার করে।

এব্যাপারে আল-আমিনের মা শায়লা খাতুন শনিবার রাতেই পোরশা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে।

পোরশা থানার অফিসার ইনচার্জ শফিকুল আজম খানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে আল আমিনের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রবিবার নওগাঁ মর্গে প্রেরন করেছে এবং আটক শাকিলা ও তার স্বামী আরস মওলা কে কোট হাজতে প্রেরন করা হয়েছে। এব্যাপারে পোরশা থানায় মামলা নং-০৮, তাং- ২০/১১/০২১ইং।