নতুন বই নিয়ে শিক্ষার্থীদের বাড়িতে বাড়িতে হাজির শিক্ষকেরা!

করোনার কারণে এবার বছরের প্রথমদিন শিক্ষার্থীদের মাঝে উৎসব করে নতুন বই বিতরণ হয়নি। বিগত বছরগুলোতে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা শীত-কুয়াশা উপেক্ষা করে সকালেই নতুন বই নিতে বিদ্যালয়ে হাজির হতো। বই নিয়েই কেউ ছুট দিত বাড়ির পথে আবার কেউবা নতুন বইয়ের ঘ্রাণ নিত মন ভরে। কিন্তু এবার করোনা মহামারির কারণে এসবের কিছুই হয়নি।

তবে নতুন বছরের প্রথমদিন নতুন বই বিতরণ বন্ধ থাকেনি। উৎসব না হলেও এবার বই বিতরণে ছিল ব্যতিক্রমী উদ্যোগ। ভ্যানে করে বাড়ি বাড়ি বই পৌঁছে দেওয়ার ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নেয় কুমিল্লা হাইস্কুল।

শুক্রবার (০১ জানুয়ারি) কুমিল্লা শহরের চানপুর এলাকায় ভ্যানে করে বই পৌঁছে দেন কুমিল্লা হাইস্কুলের এক দল শিক্ষক। তালিকা ধরে বই বিতরণ করেন। যেসব এলাকায় ভ্যান নিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়নি, সেসব এলাকায় হাতে করে বই নিয়ে যান শিক্ষকেরা।

বেলা ১১টার দিকে বই নেয় বিদ্যালয়টির শিক্ষার্থী আবুল হাসান। সে বলে, ‘অন্যবার নিজেরা বই আনতে যেতাম। এবার স্যারেরা বাড়ি এসে বই দিয়ে গেলেন। এটাও খারাপ না।’

একই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নীলিমা পেয়েছে বই। সে বলে, ‘বাড়িতে নতুন বই পেয়ে ভালো লাগল। জীবনে এমনভাবে বই দিতে দেখিনি। স্যারদের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ।’

বাড়ি বাড়ি গিয়ে বই দেওয়ার বিষয়ে কুমিল্লা হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. হুমায়ুন কবির বলেন, করোনার কারণে এবার বই-উৎসব সেভাবে করা গেল না। তাই আমরা শিক্ষার্থীদের বাড়ি বাড়ি বই পৌঁছে দিচ্ছি।’

জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আবদুল মজিদ বলেন, কুমিল্লার মহানগর ও ১৭টি উপজেলার সব প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বই বিতরণ করা হয়েছে। বিতরণ কয়েক দিন চলবে। করোনার কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বই দেওয়া হচ্ছে।



মন্তব্য চালু নেই