শিরোনাম:

নাটোরে পিতাকে হত্যার দায়ে পুত্রের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলায় জমি লিখে না দেওয়ায় বাবাকে শ্বাসরোধে হত্যার দায়ে ছেলেকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এসময় তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে আরও ৩ মাসের কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়।

মঙ্গলবার (১৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নাটোর দায়রা জজ শরীফ উদ্দীন এই আদেশ দেন। নাটোর কোর্ট ইন্সপেক্টর নজমূল হক এ তথ্য জানান। দণ্ডপ্রাপ্ত মোরশেদুল ইসলাম (৩৯) উপজেলার ভট্টপাড়া গ্রামের আফছার আলী মন্ডলের ছেলে।

জমিজমা লিখে না দেওয়ায় শ্বাসরোধে বাবাকে হত্যার অভিযোগে আসামীর বোন আর্ণিকা বেগম বাদী হয়ে ২০১৮ সালের ১১ আগস্ট মামলাটি দায়ের করেন। মামলাসূত্রে জানা যায়, বাদী আর্ণিকা বেগম ২০১৮ সালের ১১ আগস্ট নলডাঙ্গা থানায় ওই মামলা দায়ের করেন।

মামলায় তিনি দাবী করেন, তার ভাই মোরশেদুল দীর্ঘদিন ধরে বাবার স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি নিজের নামে লিখে দিতে বাবাকে চাপ ও ভয়ভীতি ছাড়াও মারধর করত। এ নিয়ে স্থানীয় শালিশ বৈঠক হলেও এর কোনো কর্ণপাত করেননি মোরশেদুল।

২০১৮ সালের ১০ আগস্ট সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বাবার শয়ন কক্ষে গিয়ে জমি লিখে দেওয়ার জন্য চাপ দেন মোরশেদুল। এতে অস্বীকৃতি জানালে ক্ষিপ্ত হয়ে বাবাকে শ্বাসরোধে হত্যা করেন তিনি। ঘটনায় মামলা হলে পরদিন ১১ আগস্ট আসামীকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠায় পুলিশ।

আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। দীর্ঘ তদন্ত শেষে ২০১৯ সালের ১৩ মে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই জামিল উদ্দিন। শুনানী শেষে মঙ্গলবার দুপুরে আদালত আসামীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং ১০ হাজার টাকা জরিমানাসহ অনাদায়ে আরও ৩ মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দেন।