নিজের ভাগ্যের করুণ পরিণতি, নিজেই জানলেন না খ্যাতিমান এ জ্যোতিষী!

প্রতিদিন বহু মানুষের ভাগ্য বলে দিতেন জ্যোতিষী জয়ন্ত শাস্ত্রী। এমন কি শেষ রাত, শনিবার (৩১ অক্টোবর) দুটি টেলিভিশন চ্যানেলে বসে লাইভ অনুষ্ঠানে বহু দর্শকদের ভাগ্য বলে দিয়েছেন তিনি।

তবে, নিজের ভাগ্যের এমন পরিণতি সম্ভবত জানতেই পারেননি।

রোববার (১ নভেম্বর) সকালে নিজের ঘরে অগ্নিদগ্ধ হয়ে প্রাণ হারাতে হয় তাকে।

প্রখ্যাত এই জ্যোতিষী কলকাতা ছাড়াও ঢাকা, লন্ডন, থিম্পু, দুবাইসহ ৩৪টি দেশে স্থানীয় অফিসে গিয়ে নিয়মিত ভাগ্যবিচার করতেন।

৫৫ বছর বয়স্ক জ্যোতিষী কলকাতার অদূরে কেষ্টপুরের নিজের বাড়িতে থাকতেন। সেখানে তিনি ছাড়া আর কেউ থাকতেন না। রোববার সকালে নিজের বাড়িতেই আগুন লাগে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন, আনুমানিক সকাল সাড়ে ৭টার দিকে প্রতিবেশীরা তার চারতলার বাড়ির দোতলা থেকে দাউদাউ করে আগুন জ্বলতে দেখতে পান। তখনই খবর দেওয়া হয় দমকল বাহিনীকে। দমকলের ২টি ইঞ্জিন প্রায় এক ঘণ্টা চেষ্টা করে আগুন নেভাতে পারলেও ৫০ শতাংশ দগ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করা হয় ওই জ্যোতিষীকে। হাসপাতালে নেওয়ার পথেই তার মৃত্যু হয়।

এই জ্যোতিষীর মৃত্যুতে গভীর শোকের ছায়া নেমে এসেছে কলকাতার জ্যোতিষীমহলে। জ্যোতিষ শাস্ত্র ও বাক-পাণ্ডিত্যের জন্য বহু দেশ থেকে তিনি স্বীকৃতি অর্জন করেছেন।



মন্তব্য চালু নেই