মেইন ম্যেনু

নিষেধাজ্ঞার ১ম দিনেই প্রকাশ্যে বিক্রি হচ্ছে ইলিশ

ইলিশ শিকারে নিষেধাজ্ঞার প্রথম দিন আজ। তবে পটুয়াখালীর বাউফলের বাণিজ্যবন্দর কালাইয়ার মাছ বাজার সংলগ্ন খালে আজ সকাল ১০টার দিকে ট্রলার বোঝাই ইলিশ মাছ বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে। বন্দরের লঞ্চঘাট এলাকার হযরত আলী নামে একজন আড়ৎদারকে ওই মাছগুলো বিক্রি করতে দেখা গেছে।

বন্দরের নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির অদূরে নিষেধাজ্ঞার প্রথম দিনেই ট্রলার বোঝাই করে নিয়ে এসে প্রকাশ্যে ওই ইলিশ মাছ বিক্রি করতে দেখা যায়। এতে হতবাক স্থানীয় অনেকেই।

স্থানীয় কয়েকজন জানান, গত মধ্যরাত (০৮ অক্টোবর) থেকে ক্রয়-বিক্রয় ও পরিবহনসহ ইলিশ শিকারে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। অথচ সকালে বন্দরের মাছ বাজার সংলগ্ন খালে একটি ইঞ্জিন চালিত ফিশিং ট্রলার বোঝাই করে দক্ষিনাঞ্চল থেকে ইলিশ মাছ নিয়ে এসে হই-হুল্লোর করে প্রকাশ্যে তা স্থানীয়দের মাঝে বিক্রি করা
হয়। এ সময় ২শ’ টাকা কেজি হিসেবে দাম হেকে বিভিন্ন সাইজের অন্তত ১ হাজার পিচ ইলিশ মাছ বিক্রি করা হয়। দামে কম পাওয়ায় অনেকেই ডাক-চিৎকার দিয়ে
ইলিশ মাছগুলো লুফে নিয়েছেন।

এদিকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বন্দরের একজন মুদি ব্যাবসায়ী প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলে বলেন, ‘অবরোধের প্রথম দিনেই এরকমভাবে প্রকাশ্যে ট্রলার বোঝাই করে প্রশাসনের নাকের ডগায় উৎসব করে ইলিশ মাছ বিক্র করছে। এমন হলে কি করে অবরোধ কার্যকর হবে?’

এ ব্যাপারে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. জাসিম উদ্দিন বলেন, ‘বিষয়টি আমার জানা নাই। গত রাতে থেকেই অভিযান পরিচালনায় আছি। আর এই মুহুর্তে উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তাসহ হযরত আলীর আড়তেই অবস্থান করছি। তার আড়তে তল্লাসিসহ বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’



মন্তব্য চালু নেই