প্রধান ম্যেনু

নোয়াখালী সদর কিশোরের মৃতদেহ উদ্ধার

এইচ.এম আয়াত উল্যা, নোয়াখালী থেকে : নোয়াখালীর সদর উপজেলার ধর্মপুর ইউনিয়ন থেকে মেহরাজ উদ্দিন হিরণ (১৬) নামে এক কিশোরের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পরিবারের লোকজন বলছে হিরণকে হত্যা করা হয়েছে। রোববার (১৮ নভেম্বর) দুপুরে উপজেলার ধর্মপুর ইউনিয়নের ভাটিরটেক গ্রাম থেকে পুলিশ নিহত কিশোরের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। এরআগে, শনিবার রাতের কোনো এক সময় উপজেলার ধর্মপুর ইউনিয়নের ভাটিরটেট গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত মেহরাজ উদ্দিন হিরণ ওই গ্রামের গরু গাড়ি জামালের বাড়ির জামাল উদ্দিনের ছেলে।

নিহতের বড় ভাই মুরাদ জানান, আমার ভাই হিরনে সাথে পার্শ্ববর্র্তী বাড়ির সজলের মেয়ে নুপুরের (১৩) সাথে গত ছয় মাস ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল। এ প্রেমের সম্পর্কের জের ধরে গত কয়েক দিন ধরে উভয় পরিবারের সাথে বাকবিতন্ডা ও বিবাদ শুরু হয়। এর জের ধরে নুপুরের মা মরিয়ম বেগম তার ভাই হিরণকে শনিবার রাতে তাদের বাড়িতে ডেকে নেয়। এরপর সে রাতে আর বাড়ি ফিরে আসেনি। রোববার সকালে আমাদের বাড়ির আঙ্গিনার পুকুরের পাশের আম গাছের সাথে হিরণের ঝুলন্ত মৃতদেহ দেখতে পায় বাড়ির লোকজন। পরে সুধারাম থানা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

তিনি অভিযোগ করে জানান, নুপুরের মা পরিকল্পিতভাবে আমার ভাইকে হত্যার পর মৃতদেহ আমাদের বাড়ির আম গাছের সাথে ঝুলিয়ে রাখে। আমরা এ হত্যার আসামীদের গ্রেফতার ও বিচার দাবি করছি।

সুধারাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন জানান, নিহতের মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনা নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও ওসি জানান।



মন্তব্য চালু নেই