নড়াইলে ছাত্রলীগের নেতাকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় ১৪জনকে আসামি করে মামলা দায়ের

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার দিঘলিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ জহিরুল ইসলাম রেজওয়ানকে (২৪) কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় ১৪জনকে আসামি করে লোহাগড়া থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।

সোমবার দুপুরে নিহত রেজওয়ানের মা জরিনা বেগম বাদি হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ আশিকুর রহমান জানান, দিঘলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগ নেতা লতিফুর রহমান পলাশ, হত্যা মামলাসহ ১৩ মামলার আসামি সোহেল খানকে প্রধান আসামি করে মোট ১৪জনকে এ মামলায় আসামি করা হয়েছে।
সোহেল দিঘলিয়া ইউনিয়নের কুমড়ী গ্রামের
বদির খানের ছেলে।

সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৭টার দিকে দিঘলিয়া গ্রামের মৃত শেখ সাইফুল ইসলামের ছেলে ছাত্রলীগ নেতা রেজওয়ান বাড়ির পাশে দিঘলিয়া চৌরাস্তা এলাকায় হাঁটছিলেন। এ সময় আসামিরা মোটরসাইকেলযোগে এসে রেজওয়ানের হাত-পাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। নড়াইল সদর হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

লোহাগড়া থানার ওসি সৈয়দ আশিকুর রহমান আরো জানান, পূর্বশত্রুতা ও এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের জের ধরে ছাত্রলীগ নেতা শেখ জহিরুল ইসলাম রেজওয়ানকে কুপিয়ে হত্যা করে প্রতিপক্ষরা। এ ঘটনায় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ ১০জনকে আটক করে।

ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্ততা না থাকায় পরে তাদেরকে ছেড়ে দেয়া হয়। এজাহারভূক্ত আসামিদের গ্রেফতারে জোর চেষ্টা চলছে বলে ওসি জানান।



মন্তব্য চালু নেই