পঞ্চগড়ে আগুনে পুড়েছে ২০ পরিবারের ঘরবাড়ি

পঞ্চগড় সদর উপজেলার সাতমেড়া ইউনিয়নের মাঝিপাড়া এলাকায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে প্রায় ২০টি পরিবারের ঘরবাড়ি পুড়ে ছাই হয়েছে।
সোমবার বিকেলে উপজেলার মাঝিপাড়া এলাকায় এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। এই অগ্নিকান্ডে স্থানীয় এলাকাবাসীদের সহযোগীয় প্রায় এক ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। অগ্নিকান্ডের ঘটনায় প্রায় ত্রিশ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবী করছেন ওই ২০টি পরিবার।

এসময় খবর পেয়ে পঞ্চগড় ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌছানোর আগেই আগুনে ওই পরিবারদের ঘরে থাকা আসবাবপত্র, টাকা, স্বর্ণলংকার, ধান, চাল, কাপড় পুড়ে ছাই হয় হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিসের ইউনিট ওয়্যার হাউস ইন্সপেক্টও ভূপেন্দ্রনাথ রায় তিনি জানান, তাৎক্ষানিক খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনার চেষ্টা করে এবং ক্ষতির পরিমাণ তদন্ত সাপেক্ষে বলা যাবে। আগুনের সূত্রপাত জানতে চাইলে তিনি আরও জানান প্রাথমিক অবস্থায় ধরণা করা হচ্ছে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে হতে পারে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আনুমানিক সময় বিকেল ৫টার দিকে সালামের বাড়ি থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। জবেদ আলি তিনি জানান, বিকেলে সালামের স্ত্রী লাকি বেগম গ্যাসের চুলায় রান্না বসিয়ে পাশের বাড়িতে গল্প করেন এক সময় রান্না ঘর থেকে আগুনের ভুল্কি বের হতে দেখলে তৎক্ষানিক ভাবে প্রতিটি বাড়িতে আগুন ছড়িয়ে পড়ে।

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্য ছুবেদ,জবেদ,তরিকুল,মকবুল, আজাহার অনেকে সহ আহাজারি করে বলেন আজকের রাতে কিভাবে থাকবো এক আল্লাহ ছাড়া আর কেউ জানে না আমরা সব হারিয়ে সর্বস্ব হলাম।

এদিকে খবর পেয়ে সাতমেড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের তালিকা তৈরি করেন এবং ঘটনাস্থল পরিদর্শনে সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আমিরুল ইসলাম ও নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফ হোসেন তালিকা অনুযায়ি ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারদের মাঝে শুকনা খাবার ও দুইটি করে কম্বল বিতরণ করেন এবং পরবর্তীতে সার্বিক সহযোগীতার করার আশ্বাস দেন।



মন্তব্য চালু নেই