মেইন ম্যেনু

পরীক্ষা কেন্দ্রে আ’লীগ নেত্রীর ফটোসেশনে সমালোচনার ঝড়

যশোরের চৌগাছায় একটি পরীক্ষা কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ নেত্রীর ফটোসেশনের ঘটনায় সমালোচনার ঝড় উঠেছে। বুধবার কাটগড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে জেএসসি পরীক্ষা চলাকালীন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেত্রী চাঁদনি আক্তার অবাধে প্রবেশ করেন। একই সঙ্গে তিনি পরীক্ষার হলে রুমে ঘুরে ঘুরে ছবি তোলেন। সেই ছবি ফেসবুকে আপলোড করার পর সমালোচনার মুখে পড়েছেন তিনি।

তবে কেন্দ্র সংশ্লিষ্টরা বলছেন, তাকে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়নি। তিনি কখন প্রবেশ করে ছবি তুলেছেন, সেটি কারো জানা নেই।

জানা যায়, বুধবার জেএসসি ও জেডিসি বাংলা প্রথম বিষয়ের পরীক্ষা শুরু হয়। পরীক্ষা শুরুর পরপরই কাঠগড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে প্রবেশ করেন সুখপুকুরিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে পরাজিত প্রার্থী চাঁদনী আক্তার ও তার ছোট্ট বাচ্চা ও বডিগার্ড।

এ সময় তারা কেন্দ্রের রুমে ঘুরে ঘুরে ছবি তোলেন। পরবর্তীতে তিনি কেন্দ্র পরিদর্শনের ছবি ফেসবুকে আপলোড করেন। পরীক্ষা চলাকালীন কেন্দ্রে প্রবেশ ও অবাধে ছবি তোলার ঘটনায় ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

এ ঘটনায় চাঁদনী আক্তার বলেন, ‘পরীক্ষা কেন্দ্রের আইন সম্পর্কে আমার জানা নেই। এখন দুঃখ প্রকাশ ছাড়া কিছুই বলার নেই।’
কেন্দ্র সচিব তবিবর রহমান জানান, চাঁদনী আক্তার কেন্দ্রে প্রবেশ করতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাকে বাধা দেন। এরপর তিনি কখন কেন্দ্রে প্রবেশ করেছেন তা আমার জানা নেই।

সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম জানান, ‘কেন্দ্রে কে প্রবেশ করবে তা নিয়ন্ত্রণ করবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। আমি দায়িত্বে থাকা অবস্থায় কেন্দ্রের একটি কক্ষে হঠাৎ চাঁদনী আক্তারকে দেখতে পাই। তার লোকজন কখন ছবি তুলেছে তা আমি জানি না।’

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কেএম জাহাঙ্গীর বলেন, ‘কেন্দ্র সচিবের অনুমতি ছাড়া কেউ কেন্দ্রে প্রবেশ করতে পারবে না। আর মোবাইল ফোন নিয়ে প্রবেশের প্রশ্নই ওঠে না।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নার্গিস পারভীন বলেন, ‘চাঁদনীসহ কাউকে প্রবেশ না করার জন্য আমি নির্দেশ দিয়ে আসি। পরবর্তীতে তিনি প্রবেশ করেছেন এখন জানতে পারছি। বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’



মন্তব্য চালু নেই