শিরোনাম:

পলাতক ভারতীয় বিচারপতি কারনান এখন বাংলাদেশে?

কারাদণ্ডপ্রাপ্ত কলকাতা হাই কোর্টের আলোচিত বিচারক চিন্নাস্বামী স্বামীনাথন কারনান গ্রেফাতার এড়াতে সীমান্ত পেরিয়ে নেপাল বা বাংলাদেশে পালিয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। আদালত অবমাননার মামলায় তার সম্প্রতি ছয় মাস কারাদণ্ড হয়।

ভারতের সর্বোচ্চ আদালতের আদেশের পর বিচারপতি কারনানকে গ্রেফতারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতার মধ্যে বুধবার তার এক ঘনিষ্ঠ সহযোগী ও আইনজীবীর বরাত দিয়ে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস এ তথ্য দিয়েছে।

ডব্লিউ পিটার রমেশ কুমার নামে ওই আইনজীবী বলেছেন, একমাত্র ভারতের প্রেসিডেন্ট সাক্ষাৎ দিলেই তিনি দেশে ফিরবেন।

চেন্নাইয়ের চিপৌক গভর্নমেন্ট গেস্ট হাউস থেকে বিচারপতি কারনান বুধবার সকালে চেন্নাই থেকে প্রায় ১৩০ কিলোমিটার দূরে অন্ধ্র প্রদেশের চিত্তোর জেলার মন্দির কালাহস্তি পরিদর্শনের উদ্দেশ্যে বেরিয়ে যান বলে পুলিশ ও গণমাধ্যমকর্মীদের জানানো হয়েছিল।

তবে কুমার বলছেন, ওই বিচারকের মোবাইল ফোনটিই কালাহস্তি গেছে, তিনি নিজে উত্তর দিকের পথ ধরেছেন।

বিচারপতি কারনান সীমান্ত পেরিয়ে ‘নেপাল বা বাংলাদেশে’ ঢুকেছেন বলে দাবি করলেও তিনি কোন পথে কীভাবে গেছেন সে বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে চাননি তার আইনজীবী কুমার।

সড়ক পথে চেন্নাই থেকে ভারতের যে কোনো সীমান্তে পৌঁছাতে অন্তত ৩৬ ঘণ্টার ভ্রমণ অনিবার্য।

ভারতের প্রধান বিচারপতি জে এস খেহার আদালত অবমাননার দায়ে বিচারক কারনানকে দোষী সাব্যস্ত করে মঙ্গলবার তাকে ছয় মাসের কারাদণ্ডের আদেশের সঙ্গে তাকে গ্রেফতারে কলকাতার পুলিশ প্রধানকে নির্দেশ দেন।