শিরোনাম:

পাবনার চাটমোহরে জমজমাট কলার হাট

পাবনা জেলার চাটমোহর উপজেলায় সপ্তাহে দুইদিন বসে বৃহৎ কলার হাট। এখানকার কলার প্রচুর চাহিদা থাকায় প্রতি সপ্তাহে ঢাকাসহ সারাদেশে প্রচুর কলা সরবরাহ হচ্ছে। এতে লাভবান হচ্ছেন এ অঞ্চলের কৃষক। কষ্টার্জিত ফলের ভালো দাম পেয়ে খুশি কৃষক।

এদিকে, প্রচুর লাভজনক এ কলা চাষে বিপ্লব ঘটাতে কাজ করে যাচ্ছে চাটমোহর উপজেলা কৃষি অধিদপ্তর।

চাটমোহর উপজেলা থেকে ভাঙ্গুড়া মিনিবিশ্ব রোডের পাশে গুণাইগাছা খেলার মাঠে অবস্থিত এই কলার হাট। সপ্তাহে দুই দিন বসে এই কলার হাট। খুব সকাল থেকে এ হাটে সবরী, চাপা সবরী, সাদা সবরী, জয়েন্ট কলা, চাপা কলাসহ বিভিন্ন নামের কলা নিয়ে আসতে থাকে চাটমোহরসহ জেলার বিভিন্ন উপজেলার কৃষক ও ফরিয়া ব্যবসায়ীরা। বর্তমানে এখানকার কলার চাহিদা বেড়েছে দ্বিগুণ। এখানে প্রতি কাঁদি কলা বিক্রি হচ্ছে ৪০০ থেকে ৭০০ টাকা পর্যন্ত। এতে লাভবান হচ্ছেন এ অঞ্চলের কৃষক।

সপ্তাহের শনিবার ও মঙ্গলবার খুব সকালেই ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে কলা কিনতে এ হাটে আসেন ব্যাপারীরা। এখানকার কলা অনেক সুস্বাদু। দেশব্যাপী এর চাহিদাও রয়েছে প্রচুর। এজন্য দীর্ঘদিন ধরে এখান থেকে কলা নিয়ে দেশের বিভিন্ন জায়গায় সরবরাহ করে থাকেন বলে জানিয়েছেন ব্যাপারীরা। তবে এবার কলার দাম অনেক বেশি বলেও দাবি তাঁদের।

উপজেলা কৃষি অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, উপজেলায় মোট প্রায় ১৯৬ হেক্টর জমিতে কলার আবাদ হয়েছে। এরমধ্যে সবরী কলা ১০১ হেক্টর এবং অন্যান্য কলা ৯৫ হেক্টর।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ এএ মাসুমবিল্লাহ বলছেন, ‘কলা অত্যান্ত সুস্বাদু ও সহজলভ্য একটি ফল। এ উপজেলায় উৎপাদিত কলার ব্যাপক চাহিদা রয়েছে।

এ ফলের বিস্তার ঘটাতে কৃষি বিভাগ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে বলেও জানান তিনি।