শিরোনাম:

পাবনা সাঁথিয়ায় বাগানে স্কুল ছাত্রের লাশ!

পাবনা সাঁথিয়ায় কৌশিক হোসেন (১৪) নামে এক ৭ম শ্রেণির এক ছাত্রকে দুর্বৃত্তরা কুপিয়ে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
শনিবার (২০ নভেম্বর) রাতে বনগ্রাম গাংগুহাটি গ্রামের বামনডাঙ্গা এলাকার একটি বাগান থেকে ওই ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।
নিহত কৌশিক গাংগুহাটি গ্রামের মো. হারুন প্রধানেরা ছেলে। সে মিয়াপুর হাজী জসিম উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজের সপ্তম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ছিল।

স্থানীয়রা জানান, সন্ধ্যার পরে গ্রামের লোক রাস্তার পাশের মেহগনি বাগান দিয়ে যাতায়াতের সময় একটি মরদেহ দেখতে পায়। পরে মাইকে বিষয়টি জানানো হয়। এরপর কৌশিকের পরিবার গিয়ে তার লাশ শনাক্ত করে।
এ ঘটনায় এলাকায় আতংক বিরাজ করছে। তাকে হত্যা করে গ্রামে লাশ ফেল গেছে বলে স্থানীয়দের ধারণা। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

নিহতের মা জাহানারা খাতুন জানান, সকালে তার ছেলে কৌশিক বাড়ি থেকে বের হয়ে সারাদিন বাড়িতে ফিরে না আসায় আত্মীয়-স্বজনসহ বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ করা হয়। সন্ধ্যার পরে খবর পেয়ে তার মরদেহ শনাক্ত করা হয়।
জাহানারা আরও জানান, এই ঘটনা হয়ত কেউ পরিকল্পিতভাবে ঘটিয়েছে।
হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চান তিনি।

আতাইকুলা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. জালাল উদ্দিন জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে তাকে হত্যা করা হয়েছে। কিন্তু কী কারণে, কে বা কারা হত্যা করেছে তা জানা যায়নি। মরদেহ উদ্ধার করে পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

পাবনা সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রোকনুজ্জামান জানান, খরব পেয়ে পুলিশের ঊর্ধ্বতন টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। অপরাধী যেই হোক তাকে আইনের আওতায় আনা হবে। থানা পুলিশকে মামলা রুজু করতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।