প্রধান ম্যেনু

প্রেমিকার বিয়ে হওয়ায় ভার্সিটির ছাত্রের আত্মহনন!

নারায়ণগঞ্জে নিজ ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় এক ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। প্রেমঘটিত বিষয় নিয়ে অভিমানের জের ধরে সাকিব আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন বলে ধারণা পুলিশের। সদর উপজেলার ফতুল্লার এই নিহত ছাত্রের নাম সাকিব (২৪)। তিনি একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছিলেন।

শনিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ফতুল্লার দাপা ইদ্রাকপুর উকিলবাড়ির মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত সাকিব দাপা ইদ্রাকপুর এলাকার হাজী আব্দুল আজিজের ছেলে। তিনি আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ’র (এআইইউবি) কম্পিউটার সাইন্সের শেষ বর্ষের ছাত্র ছিলেন।

এলাকাবাসী জানান, সাকিব বেশির ভাগ সময় হতাশায় ভুগতেন। প্রায় ১৪ থেকে ১৫ বছর আগে তার এক ভাইও আত্মহত্যা করেছিল। সন্তানের এমন চলে যাওয়া কিছুতেই মানতে পারছেন না সাকিবের মা। বারবার কান্নায় ভেঙে পড়ছেন। সাকিবের প্রেমিকার অন্যত্র বিয়ে হয়ে যাওয়ায় অভিমান করে আত্মহত্যা করেছে বলে পরিবারের ধারণা।

ফতুল্লা মডেল থানার এসআই ফাহেয়াত উদ্দিন রক্তিম জানান, ধারণা করা হচ্ছে প্রেমঘটিত বিষয় নিয়ে অভিমানের বশবর্তী হয়ে সাকিব আত্মহত্যা কর পারে। তার স্বজন ও বন্ধুদের সঙ্গে কথা বলে এমনটিই জানা গেছে। তার গার্লফ্রেন্ডের গত পরশুদিন বিয়ে হয়। এতে অভিমানে তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলেই সকলের ধারণা। মৃতের পরিবার ময়নাতদন্ত করতে রাজি না হওয়ায় বিনা ময়নাতদন্তে মরদেহ দাফনের জন্য পরিবার নিয়ে গেছে।



মন্তব্য চালু নেই