শিরোনাম:

বকেয়া বেতনের দাবিতে মেট্রোরেল শ্রমিকদের বিক্ষোভ

বকেয়া বেতন পরিশোধ না করা, আটকে থাকা বেতন পরিশোধ করার দাবিতে বিক্ষোভ করেছে মেট্রোরেল শ্রমিকরা। এসময় তাদের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার ও পুলিশে ধরিয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়েছে বলেও অভিযোগ করেন শ্রমিকরা।

বুধবার (১০ আগস্ট) দুপুর সাড়ে ১২ টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মেট্রোরেল স্টেশনে এ বিক্ষোভ করে। এর আগে শ্রমিকরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি স্টেশন থেকে এসে জড়ো হয়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন শ্রমিক জানান, ঈদের আগের পাঁচ দিন এবং পরবর্তী এক মাসের বেতন আটকে রেখেছে মেট্রোরেল প্রজেক্টের এসএমসিসি- আইটিডি – জেভির এডমিন। বেতন চাইলে তারা চাকরিচ্যুত করার হুমকি দেয়। আমরা যদি এখন নাম বলি আমাদেরকে চাকরিচ্যুত করা হবে। শ্রমিকদের চাকরিচ্যুত করতে পারলে তাদের পকেটে টাকা আসে। তারা নতুন কাউকে নিয়োগ দিলে ৩০ হাজার টাকা ঘুষ নেয়।

শ্রমিকরা বলেন, এডমিন থেকে গতকাল মেসেজ দেওয়া হয়েছে ঈদের আগের পাঁচ দিনের বেতন দেওয়া হবে ১৪ আগস্ট আর গত মাসের বেতন দেওয়া হবে ২৫ তারিখের পর বা আরও পরে। এই হলো অবস্থা।

এ সময় শ্রমিকরা আরও বলেন, আমরা বিভিন্ন জেলা থেকে ঢাকায় এসে কাজ করছি। আমরা বেতন না পাওয়ায় বাসা ভাড়া দিতে পারতেছিনা এবং খাবার বিল দিতে পারতেছিনা। আমরা যে প্রতিদিন বাসা থেকে যাতায়াত করি সেই টাকাও নেই আমাদের কাছে। এছাড়া বাড়িতেও পরিবারকে টাকা দিতে পারতেছিনা। আমরা অতি দ্রুত টাকা দাবি করছি। শ্রমিকরা যাতে আন্দোলন না করতে পারে সেজন্য তাদের উপরে আটকে রাখা হয়েছে। তাদেরকে নীচে নামতে দেওয়া হচ্ছে না। পরবর্তীতে তাদের নামতে দেওয়া হয়েছে

এসএমসিসি ও আইটিডি জেভির এডমিন ফখরুল ইসলাম ঘটনাস্থলে এসে বলেন, আগামীকালই শ্রমিকদের বেতন দিয়ে দিবো। শ্রমিকদেরকে ভুল তথ্য দিয়ে আন্দোলনে নামানো হয়েছে।

ফখরুল ইসলামের আশ্বাসের পর শ্রমিকরা আন্দোলন বন্ধ করে। যদিও তারা সন্দেহ পোষন করছেন এই বক্তব্যের। এছাড়া আন্দোলন করার কারণে চাকরি চলে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন শ্রমিকরা।