মেইন ম্যেনু

বগুড়ায় চালকের ঘুমে ট্রাক খাদে, মা-মেয়ে নিহত

বগুড়ার শাজাহানপুরের ফটকি ব্রিজ এলাকায় ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কে বুধবার দুপুরে ইস্পাতবাহী ট্রাক খাদে পড়ে মা ও মেয়ে নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন তাদের স্বামী ও মেয়ের শিশুপুত্র আরমান।

দুপুর ১২টার দিকে ট্রাক বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার সাজাপুর ফুলতলা ফটকি ব্রিজ এলাকায় মহাসড়কে এ ঘটনা ঘটে।

হাইওয়ে পুলিশের ধারণা, ট্রাকচালক ঘুমাচ্ছিলেন, সামনে আসা একটি ট্রাককে সাইড দিতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন ঠাকুরগাঁও সদরের শাহ্পাড়ার আবদুল কাইয়ুমের স্ত্রী জাহেদা বেগম (৪৫) ও তার মেয়ে একই এলাকার জনি মিয়ার স্ত্রী সাবিনা বেগম (২৪)।

আহতরা হচ্ছেন আবদুল কাইয়ুম, জনি মিয়া ও তার শিশুপুত্র আরমান (৪)। তাদের বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

হাইওয়ে পুলিশ বগুড়া অঞ্চলের কুন্দারহাট ফাঁড়ির এসআই কাজল নন্দী জানান, আহত কাইয়ুম ও জনি ঢাকার সাভারে কোনো গার্মেন্টসে কাজ করেন। সেখানে তারা পরিবার নিয়ে বসবাস করেন। বুধবার তারা কাপড়চোপড়সহ সাভার থেকে ইস্পাতবাহী ট্রাকের ডালায় ঠাকুরগাঁও ফিরছিলেন।

দুপুর ১২টার দিকে ট্রাক বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার সাজাপুর ফুলতলা ফটকি ব্রিজ এলাকায় মহাসড়কে পৌঁছে। এ সময় ট্রাকচালক তন্দ্রাচ্ছন্ন ছিলেন। হঠাৎ সামনে একটি খালি ট্রাক দেখতে পেয়ে চালক নিয়ন্ত্রণ হারান। এতে ইস্পাতবাহী ট্রাকটি ব্রিজের আগে রেলিং ভেঙে খাদে উল্টে পড়ে যায়।

ট্রাক ও ইস্পাতের চাপায় ঘটনাস্থলে জাহেদা বেগম ও তার মেয়ে সাবিনা বেগম মারা যান। আহত হন জাহেদার স্বামী আবদুল কাইয়ুম, সাবিনার স্বামী জনি মিয়া ও ছেলে আরমান।

হাইওয়ে পুলিশ ও বগুড়া ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা প্রায় ২ ঘণ্টার চেষ্টায় হতাহতদের এবং ট্রাকটি উদ্ধার করেন। আহতদের বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ট্রাকচালক ও হেলপার পালিয়ে গেছে।

তবে প্রত্যক্ষদর্শীদের কেউ কেউ বলেছেন, ট্রাকচালকের নাম সোহাগ (৪৫)। তিনি গোপনে একই হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

শাজাহানপুর উপজেলা চেয়ারম্যান সরকার বাদল জানান, নিহতের লাশ বাড়িতে পৌঁছানো ও আহতদের চিকিৎসার ব্যয় উপজেলা প্রশাসন বহন করবে।



মন্তব্য চালু নেই