শিরোনাম:

বরিশালে পোশাক বিতানে হামলা-ভাঙচুর, ৪০ জনের বিরুদ্ধে মামলা

বরিশালে একটি অভিজাত পোশাক বিতানের শো রুমে হামলা-ভাঙচুর এবং লুটের ঘটনায় থানায় একটি মামলা হয়েছে। ওই পোশাক বিতানের বরিশাল শাখা ব্যবস্থাপক ইমরান শেখ বাদী হয়ে আজ সোমবার দুপুরে ৫ জনের নামোল্লেখ সহ ৪০ জনকে আসামি করে এই মামলা দায়ের করেন।

মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে হামলা-ভাংচুর এবং লুটের অভিযোগ করা হয়েছে। হামলার সময় আটক ৫ জনকে ওই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে সোমবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করে পুলিশ।

এ ঘটনায় জড়িত অন্যান্যদের গ্রেফতার করে কঠোর শাস্তি দাবি করেন পোশাক বিতান কর্তৃপক্ষ। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছেন পুলিশ কমিশনার।

গতকাল রবিবার (৭ মার্চ) বিকেলে বরিশাল নগরীর প্রাণ কেন্দ্র সদর রোডের বিবির পুকুরের উত্তর পাড়ের ঈমান আলী টাওয়ারের ওই পোশাক বিতানের শো রুমে অন্যান্য দিনের মতোই স্বাভাবিক চলছিল। পোশাক বিতানের সিসি ক্যামেরার ফুটেজে দেখা গেছে, বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে মুখে মাস্ক এবং বাসন্তি রংয়ের পাঞ্জাবী পড়া মধ্য বয়সী এক ব্যক্তির নেতৃত্বে আকস্মিক অর্ধ শতাধিক তরুন-যুবক শো রুমে প্রবেশ করে।

তারা অস্বাভাবিকভাবে বিভিন্ন পণ্য ঝুড়িতে ভরে। তাদের আচরণে কর্তৃপক্ষের সন্দেহ হওয়ায় বিক্রয় কর্মীরা সুশৃঙ্খলভাবে কাউন্টারে গিয়ে বিল পরিশোধ করতে বলে।
এসময় ওই তরুন-যুবকরা মহানগর ছাত্রলীগের শীর্ষ নেতার নাম বলে পোশাক বিতানের কর্মীদের উপর হামলা-ভাংচুর চালায়। এসময় তারা বিভিন্ন ধরনের পণ্য লুট করে পালিয়ে যায়।

বিক্রয় কর্মীরা ৫ জনকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। আটক ৫ জনের মধ্যে কেউ কেউ ছাত্রলীগ নেতাদের সাথে উঠবস করে বলে বিভিন্ন ছবিতে প্রমান পাওয়া যায়। যার প্রমানাদী পুলিশকে দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন পোশাক বিতানের আইটি শাখার সিনিয়র এক্সিকিউটিভ জুনায়েদ হোসাইন।

গ্রেফতার ৫ জন ছাড়াও হামলায় জড়িত অন্যান্যদের সনাক্ত করে কঠোর বিচার দাবি করেছেন পোশাক বিতানের বরিশাল শাখার ইনচার্জ মো. মিরাজুল হক।

এদিকে, প্রকাশ্যে একটি শো রুমে হামলা-ভাঙচুর এবং লুটের ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলা তদন্ত করে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছেন মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. শাহাবুদ্দিন খান।



মন্তব্য চালু নেই