মেইন ম্যেনু

বশেমুরবিপ্রবি’র আরেক সহকারী প্রক্টরের পদত্যাগ

দুর্নীতিসহ বেশ কিছু অভিযোগে উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে উত্তাল গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বশেমুরবিপ্রবি)।

এই অবস্থার মধ্যে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে সরে দাঁড়ান বিশ্ববিদ্যালয়টির সহকারী প্রক্টর হুমায়ুন কবির। তার পদত্যাগের ছয় দিন পর পদত্যাগ করলেন সহকারী প্রক্টর ড. মো. নাজমুল হক শাহীন।

বুধবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. নুরুদ্দীন আহমেদের কাছে তিনি পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন। ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে তিনি পদত্যাগ করেছেন বলে জানা গেছে। নুরুদ্দীন আহমেদ তার পদত্যাগপত্রটি গ্রহণ করেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন।

পদত্যাগপত্র দাখিলের পর থেকে সহকারী প্রক্টরের মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। তবে একটি সূত্র জানিয়েছেন, তিনি অসুস্থ হওয়ায় ফোনটি বন্ধ বন্ধ রয়েছে।

নাজমুল হক শাহীন বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক এবং ফুড অ্যান্ড নিউট্রেশন ইন্জিনিয়ারিং বিভাগের সভাপতি হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

এর আগে শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে গত শনিবার সরে যান সহকারী প্রক্টর মো. হুমায়ুন কবির।

উপাচার্য খোন্দকার নাসিরউদ্দিনের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীরা নানা অনিয়ম, দুর্নীতির অভিযোগ তোলেন। এছাড়া কথায় কথায় শিক্ষার্থী বহিষ্কার করারও অভিযোগ উঠে উপাচার্যের বিরুদ্ধে।

বিশেষ করে গত ১১ সেপ্টেম্বর আইন বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী ও ক্যাম্পাস সাংবাদিক ফাতেমা-তুজ-জিনিয়াকে সাময়িক বহিষ্কার করলে শিক্ষার্থীরা আরও বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে। এজন্য উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে গত শুক্রবার থেকে আন্দোলন করতে থাকেন তারা।

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জিনিয়ার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করলেও ভিসির অপসারণ দাবিতে অনড় শিক্ষার্থীরা। সেদিন থেকে এক দফা দাবি আদায়ে টানা আন্দোলন চালিয়ে আসছেন শিক্ষার্থীরা।



মন্তব্য চালু নেই