শিরোনাম:

বাংলাদেশে বীমা সেবা আরও প্রসারিত করলো মেটলাইফ

আরও বেশি সংখ্যক মানুষ যাতে বীমা সুবিধা পেতে পারেন সে লক্ষ্যে মেটলাইফ বাংলাদেশের জনগণের পরিবর্তনশীল আর্থিক নিরাপত্তার চাহিদা ও বীমা কেনার অভিজ্ঞতা নতুন ভাবে পর্যালোচনা করেছে। বীমা সেবার পরিধি ও সেবার মান উন্নয়নের এই চলমান প্রক্রিয়ায় বীমা গ্রাহকেরা এখন আরো সহজে বীমা সুরক্ষা নিতে পারবেন।

প্রথমত, মেটলাইফ একটি আধুনিক ও সহজতর বীমা আবেদন রিভিউ বা অবলেখন প্রক্রিয়া চালু করেছে যার ফলে বিশ^মানের বীমা সেবার সুবিধা পাওয়া যাবে আরো বিস্তৃত ভাবে। উদাহরণস্বরূপ, বিদেশে অবস্থানরত বাংলাদেশী নাগরীকরা এখন বিশে^র যে কোন দেশে থেকেই বীমা করতে পারবেন। আগে এই সুযোগ শুধুমাত্র যে সব দেশে মেটলাইফ এর অফিস আছে সে সব দেশে অবস্থানরত বাংলাদেশীদের জন্য সংরক্ষিত ছিল।

গর্ভবতী নারীরা এখন কোন মেডিকেল পরীক্ষা ছাড়াই গর্ভাবস্থায় যেকোন সময় বীমা করতে পারবেন এবং গৃহিণীরা এখন ১০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত স্বতন্ত্র জীবনবীমা কভারেজ সুবিধা গ্রহণ করতে পারবেন। পিতামাতারা তাঁদের সন্তানের জন্য জীবন বীমা করতে চাইলে বীমা কভারেজে এখন আরও বেশি সুবিধা পাবেন।

একই সাথে, গ্রাহকের সুবিধার কথা বিবেচনা করে মেটলাইফ আরো কিছু পরিবর্তন এনেছে। যেমন: এখন খালি পেটে রক্ত পরীক্ষা করার বাধ্যবাধকতা নেই এবং আনা হয়েছে বিভিন্ন মেডিকেল টেস্টের ক্ষেত্রে নমনীয়তা। গ্রাহকরা এখন রক্ত সম্পর্কীয় পারিবারিক সদস্য ছাড়াও কোন নিকট আত্মীয়কে বীমার বেনিফিসিয়ারি হিসাবে নির্বাচন করতে পারবেন।

মেটলাইফ বাংলাদেশের জেনারেল ম্যানেজার আলা আহমদ এসব অন্তর্ভূক্তিমূলক সুবিধা সম্পর্কে বলেন, ‘বীমা আর্থিক পরিকল্পনার একটি গুরত্বপূর্ণ উপায় এবং বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় জীবনবীমা প্রতিষ্ঠান হিসেবে আমরা আরও বেশি মানুষের কাছে বীমার সুবিধাগুলো পৌঁছে দিতে চাই। গ্রাহকবান্ধব পরিকল্প, সেবা ও প্রক্রিয়া নিয়ে আমরা প্রতিনিয়ত কাজ করে চলেছি, যাতে আমাদের গ্রাহকরা তাঁদের পছন্দ মতো আর্থিক পরিকল্পনা করার সুবিধাসমূহ উপভোগ করতে পারেন।”



মন্তব্য চালু নেই