মেইন ম্যেনু

বাবার অস্ত্রে রমনা ডিসির ছেলের ‘আত্মহত্যা’

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) রমনা বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) সাজ্জাদুর রহমানের লাইসেন্স করা অস্ত্র দিয়ে তার ছেলে সাদিক আত্মহত্যা করেছেন বলে অভেযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সকালে আজিমপুরের সরকারি কোয়ার্টারের ৬৭ নম্বর বাসায় এ ঘটনা ঘটে। সাদিক ঢাকা সিটি কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ছিলেন।

জানা গেছে, সকালে সবাই যখন ঘুমে ছিলেন তখন নিজের শয়নকক্ষে বাবার লাইসেন্স করা পিস্তল দিয়ে আত্মহত্যা করেন সাদিক। তার কক্ষ ভেতর থেকে আটকানো ছিল।

ডিএমপির ডিসি ও এডিসি পদমর্যাদার দুইজন কর্মকর্তা গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

লালবাগ জোনের ইন্সপেক্টর (অপারেশন) আসলামুদ্দিন বলেন, একটা লাইসেন্স করা অস্ত্র দিয়ে রমনা জোনের ডিসির ছেলে সাদিক আত্মহত্যা করেছেন। এ ঘটনার পর পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে গেছেন।

সম্প্রতি ডিএমপির রমনা বিভাগের নতুন উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) হিসেবে যোগদার করেন সাজ্জাদুর রহমান। সাজ্জাদুর রহমান ২০০৩ সালে বাংলাদেশ পুলিশে সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) হিসেবে যোগদান করেন। এরপর তিনি সিলেট, নীলফামারী ও ময়মনসিংহ জেলায় সার্কেল এএসপি হিসেবে কাজ করেন। ২০১০ সালে জাতিসংঘ মিশনে ইউএনপিওএল লাইব্রেরিয়ায় যান। সেখানে তিনি লজিস্ট্রিক সেকশনের টিম লিডার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

মিশন শেষে ২০১২ সালে নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদান করেন সাজ্জাদুর রহমান। ২০১৫ সালে তিনি পুলিশ সুপার হিসেবে পদোন্নতি পেয়ে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের ডিসি (পশ্চিম) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এরপর সাতক্ষীরার এসপির দায়িত্ব পালন করেন তিনি।



মন্তব্য চালু নেই