প্রধান ম্যেনু

বাসের চাকা উঠে গেল শিশুর মাথার ওপর

রাজধানীর তেজগাঁওয়ে বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে ফারজানা (১০) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন শিশুটির বাবা মাওলানা মিজানুর রহমান। শুক্রবার (১০ জানুয়ারি) ৪টায় রাজধানীর তেজগাঁও থানার পাশে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

দুর্ঘটনার পর দেওয়ান পরিবহনের ওই বাসচালক সোহেল রানা বাস থামিয়ে থানা অভিমুখে দৌঁড়াচ্ছিলেন। তার দৌড় দেখে পুলিশ তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসেন। বিষয়টি সময় সংবাদকে জানিয়েছেন তেজগাঁও থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. কামাল উদ্দিন।

তেজগাঁও থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. কামাল উদ্দিন সময় সংবাদকে বলেন, দুর্ঘটনার পরই বাস চালক দৌড়াচ্ছিলেন। তখন তার দৌড়ানো দেখে আমরা তাকে আটক করি। এরপর তিনি আমাদের বলেন তিনি দুর্ঘটনা ঘটিয়েছেন। এখন বাস চালক থানা হেফাজতে আছেন। মামলার প্রস্তুতি চলছে।

দুর্ঘটনার বিষয়ে তিনি বলেন, দেওয়ান পরিবহনের একটি বাসের চাপায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। বাসটি বিশ্বরোড থেকে আজিমপুরের দিকে যাচ্ছিল। মাওলানা মিজানুর রহমানের বাসা গাজীপুরে। মেয়েকে নিয়ে তিনি টঙ্গিতে ইজতেমায় আসেন। জুমার নামাজ শেষে তিনি সেখান থেকে ঢাকায় আসেন। বিজয় সরণী সিগনালে তারা দাঁড়িয়েছিলেন। সিগন্যাল ছাড়ার সঙ্গে সঙ্গে দেওয়ান পরিবহনের গাড়ি ও মিজানুর রহমানের মোটরসাইকেল দ্রুত গতিতে ছুটে। এক পর্যায় গাড়ির সঙ্গে মোটর সাইকেলের ধাক্কা লেগে বাবা-মেয়ে সিটকে পড়েন রাস্তায়। গাড়ির পেছনের ডান পাশের চাকা শিশুটির মাথার ওপর দিয়ে চলে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। আহত হলেও অল্পের জন্য রক্ষা পান শিশুটির বাবা।

নিহত শিশুটির লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। মাওলানা মিজানুর রহমান গাজীপুরে জামেয়া রহমানিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ। তিনি শেরেবাংলা নগরে নিউরো সায়েন্স হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।



মন্তব্য চালু নেই