শিরোনাম:

বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন না সৌরভ

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচন সামনে রেখে সেলিব্রেটিদের দলে ভেড়াতে চাইছে রাজনৈতিক দলগুলো। এরইমধ্যে বেশ কয়েকজন জনপ্রিয় অভিনেতা বিজেপি ও তৃণমূলে দলে যোগ দিয়েছেন।

ক্ষমতাসীন দল বিজেপি চাইছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী তাদের দলে যোগ দিক।

কলকাতায় তৃণমূলের প্রভাব কমাতে বিজেপি চাইছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রার্থীদের বিপক্ষে হেভিওয়েট সেলিব্রেটিদের দাঁড় করাতে। সেক্ষেত্রে সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলীকে বিধানসভায় দলের মনোনয়ন দিতে চাইছে বিজেপি।

ইতোমধ্যে গাঙ্গুলীকে প্রস্তাবও দিয়েছেন বিজেপির পশ্চিমবঙ্গের সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এমন খবরে কলকাতাজুড়ে গত কয়েকদিনের গুঞ্জন – আগামী ৭ মার্চ ব্রিগেডে নরেন্দ্র মোদির জনসভায় হাজির হবে সৌরভ। সেদিনই আনুষ্ঠানিকভাবে বিজেপিতে যোগদান করবেন বিসিসিআইয়ের বর্তমান সভাপতি।

কিন্তু না, এক শব্দেই সেই গুঞ্জনকে থামিয়ে দিলেন সৌরভ গাঙ্গুলী। জানালেন, বিজেপিতে যোগ দেবেন না তিনি। মূলত কোনো দলেই যোগ দিতে রাজী নন সৌরভ। রাজনীতির মাঠে আপাতত নামার কোনো ইচ্ছা নেই জনপ্রিয় এই ক্রিকেটারের।

কলকাতার গণমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা জানিয়েছে, সৌরভ এখনই রাজনীতির ময়দানে ব্যাট করতে আগ্রহী নন। সৌরভ তার এই চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের কথা বিজেপি হাইকম্যান্ডকে জানিয়েও দিয়েছেন।

অবশ্য গত মঙ্গলবারই সৌরভ তার সিদ্ধান্তের কথা কিছুটা স্পষ্ট করেছিলেন।

বিজেপিতে যোগদানের খবরে সেদিন ভারতে সংবাদমাধ্যম ওয়ান ইন্ডিয়াকে সৌরভ বলেছিলেন, যা শুনেছেন সবটাই ভুল। রাজনীতিতে নামছি না। ব্রিগেডে যাচ্ছি না।

এরপরও সৌরভের পক্ষ থেকে ইতিবাচক সাড়া পেতে পশ্চিমবঙ্গের বিজেপি চাতক পাখির মতোই তাকিয়ে ছিল। কারণ মমতা বন্ধোপাধ্যায়ের সঙ্গে টক্কর দেওয়ার মতো জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব সৌরভ ছাড়া আর কাউকে মনে হচ্ছে না বিজেপির। জনপ্রিয়তার নিরিখে কলকাতায় সৌরভের ধারে কাছেও আর কেউ নেই। তাই আসছে বিগ্রেডে সৌরভ পদ্মশিবিরে পা রাখছেন, সেই আশায় বিজেপির নেতা-কর্মীরা।

বিজেপির সেই আশার বাধে আবারও পানি ঢাললেন সৌরভ। বুধবার রাতে ফের ‘না’ শব্দই শোনালেন সৌরভ।

সৌরভের ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রে খবর, অতীতেও সৌরভের কাছে নরেন্দ্র মোদির পক্ষ থেকে প্রস্তাব এসেছিল। তবে বরাবরই সৌরভ সেই প্রস্তাব নাকচ করে এসেছেন। অন্যান্যবারের মতো এবারও একই পথে হাঁটলেন। মঙ্গলবার সৌরভ স্পষ্ট করে জানিয়ে দিলেন, তিনি ব্রিগেডে যাচ্ছেন না। আপাতত বাড়িতে বিশ্রামে আছেন। সম্প্রতি হার্টে স্টেন্ট বসানোর পর চিকিৎসকরা যেভাবে বলেছেন, সেভাবেই চলছেন। চিকিৎসকের পরামর্শ মেনেই আহমেদাবাদের মোতেরা স্টেডিয়ামে ভারত-ইংল্যান্ড গোলাপি বলে টেস্ট ম্যাচ উদ্বোধনে যোগ দেননি তিনি।

তথ্যসূত্র: আনন্দ বাজার, ওয়ান ইন্ডিয়া



মন্তব্য চালু নেই