বিশ্বজুড়ে করোনা আক্রান্ত এক কোটি ৩০ লাখ ছাড়াল

মাত্র পাঁচ দিনে ১০ লাখেরও বেশি রোগী শনাক্তের মধ্যে দিয়ে বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা এক কোটি ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে।

সোমবার (১৪ জুলাইন) সংক্রমণের এই দুঃখজনক মাইলফলক পার হয়েছে বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে।

জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের কোভিড-১৯ ড্যাশবোর্ডের তথ্য জানাচ্ছে, বাংলাদেশের স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টায় বিশ্বজুড়ে শনাক্ত মোট রোগীর সংখ্যা ছিল এক কোটি ৩০ লাখ ৭০ হাজার ৯৭ জন।

করোনাভাইরাস সংক্রমণে জানুয়ারির শুরুর দিকে প্রথম মৃত্যুর পর সাড়ে ছয় মাসের মধ্যে বিশ্বজুড়ে মৃত্যুর সংখ্যা পাঁচ লাখ ৭২ হাজার ছাড়িয়ে গেছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) প্রধান তেদ্রোস আধানম গেব্রিয়েসুস পুরোনো দিনের মত সেই স্বাভাবিক অবস্থা অদূর ভবিষ্যতে আর ফিরে নাও আসতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন, বিশেষ করে যদি প্রতিরোধমূলক বিধিগুলো অগ্রাহ্য করা হয়।

সোমবার জেনেভায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সদরদপ্তরে আয়োজিত ভার্চুয়াল ব্রিফিংয়ে মহাপরিচালক বলেন, “অনেক বেশি দেশ ভুল পথে হাঁটছে। আর এই ভাইরাস গণমানুষের এক নম্বর শত্রু হয়ে থেকে যাচ্ছে।

“সংক্রমণ ঠেকাতে মৌলিক স্বাস্থ্যবিধি মানা না হলে এই মহামারী চলতে থাকবে, পরিস্থিতি খারাপ থেকে খারাপ এবং আরও খারাপের দিকে যাবে।”

সরকারি প্রতিবেদনগুলোর ভিত্তিতে করা রয়টার্সের বৈশ্বিক টালি দেখিয়েছে, রোগটি সবচেয়ে দ্রুতগতিতে বিস্তার লাভ করছে লাতিন আমেরিকায় আর দুই আমেরিকা মহাদেশে বিশ্বের অর্ধেকেরও বেশি সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে, অর্ধেকের বেশি মৃত্যুর ঘটনাও এখানে ঘটেছে।

৩৩ লাখ ৬৩ হাজার ৫৬ জন আক্রান্ত নিয়ে এবং এক লাখ ৩৫ হাজার ৬০৫ মৃত্যু নিয়ে উভয়ক্ষেত্রে বিশ্বে শীর্ষে আছে যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্রের পর আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্রাজিলে এবং পাশাপাশি ভারতেও কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা দ্রুতগতিতে বৃদ্ধি পাচ্ছে।

অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্ন ও ইংল্যান্ডের লেস্টার শহরসহ বিশ্বের কয়েকটি এলাকায় ফের সংক্রমণ বাড়তে থাকায় দ্বিতীয়বারের মতো লকডাউন আরোপ করা হয়েছে। চীন শাসিত হংকংয়ে সংক্রমণের তৃতীয় ঢেউ শুরুর আশঙ্কায় সামাজিক দূরত্ব বিধি পালনে ফের কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে।



মন্তব্য চালু নেই