প্রধান ম্যেনু

বিয়ের পর আমার ম্যাচিউরিটি বেড়েছে : লিটন

গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলেছেন। দলকে নিয়ে গেছেন পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে। টানা দুই ম্যাচে হাফসেঞ্চুরিও করেছেন লিটন।

নিজের পরিপক্কতা বাড়ার কারণ জানাতে গিয়ে লিটন বলেন, ‘আমি মনে করি, বিয়ের পরে ম্যাচিউরিটি (পরিপক্কতা) লেভেল একটু বেড়েছে। জানি না কীভাবে এটা বেড়েছে, কিন্তু বেড়েছে। মাঠে হোক কিংবা বাইরেই হোক।’

লিটন গত বছর বিয়ে করেন। আজ শনিবার চট্টগ্রামের বিপক্ষে ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেললেও আফসোস ঝরছে লিটন দাসের কণ্ঠে। তার আফসোস, ম্যাচ শেষ করে আসতে পারতেন, ইনিংস আরও বড় করতে পারতেন।

ম্যাচ শেষে শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে লিটন বলেন, ‘আপসোস তো অবশ্যই থাকবে। আপনি দেখেন, আমি যখন আউট হয়েছি তখন অনেক রান কম লাগতো বলের চেয়ে। নট আউট থাকলে খুব ভালো হতো।’

আজ লিটন ৭৫ রানের ইনিংস খেলেন ৪৫ বলে। ইনিংসটি সাজিয়েছেন ১১টি চার ও ১টি ছয়ের মারে। এর আগের ম্যাচেও লিটন অর্ধশতক হাকান। এ ছাড়া এই আসরে লিটন বেশ ধারাবাহিক।

নিজের ধারাবাহিকতা নিয়ে লিটনের ভাষ্য, ‘আমার তো একটাই প্রসেস অনুশীলনে, যা করি সেটাই। কোনো সময় হয়, কোনো সময় না। এবার ভালো হচ্ছে, কারণ ম্যাচিউরিটি লেভেল। গত তিন-চার বছর যেভাবে বিপিএল খেলেছি, মারলে মারতেই থাকতাম, আমি সব ধরনের শট খেলতে পারি তাই সব ধরনের শট খেলতে চাই।’ লিটন আরও বলেন, ‘আমার মনে হয়, এই বিপিএলটায় অনেক শট আমি কমিয়ে দিয়েছি। আপনি যদি দেখেন আগের দুই-তিন বছরের বিপিএল। আমি ১৫ বলে ১২-৩০ করতাম, কিন্তু আউট হয়ে যেতাম। এই বিপিএলে দেখবেন আমার প্রায় ম্যাচেই ১৫ বলে ১৭-১৩ রান। ওই জায়গাটায় আমি একটু নরমাল ক্রিকেট খেলেছি।’



মন্তব্য চালু নেই