বিয়ের পর শশুর বাড়ি থেকে স্বর্ণালংকারসহ সর্বস্ব নিয়ে পালালো বর!

মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার পাচ্চর ইউনিয়নের গোয়ালকান্দা গ্রামে বুধবার (৩০ ডিসেম্বর) রাতে মোবাইলে প্রেম করে বিয়ের পরে শশুর বাড়ি থেকে পরের রাতেই টাকা-পয়সা, স্বর্ণালংকার ও মোবাইলসহ ঘরের মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে পালিয়েছে প্রতারক বর।

এই ঘটনায় নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয় ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পাচ্চর গোয়ালকান্দা গ্রামের এক সন্তানের জননী বিধবা নারীর সাথে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে প্রতারক হৃদয়। বেশ কয়েকদিন ধরে মোবাইলে কথা বলে সে। প্রতারক হৃদয় রাজধানীর গাবতলীর ঠিকানা দিয়ে তার বাবা-মা বেঁচে নেই বলে ভালোবাসার অভিনয়ের মাধ্যমে সম্পর্ক গড়ে তুলে একপর্যায়ে সে বিয়ের প্রস্তাব দেয় রোকেয়াকে। পরবর্তীতে গত ২৯ ডিসেম্বর রোকেয়াকে বিয়ে করে শশুরবাড়ি গিয়ে উঠে প্রতারক বর। সেখানে রাত্রিযাপন করে বাসর রাতও সম্পন্ন করে। ৩০ ডিসেম্বর রাতে কৌশলে স্বর্ণালংকার, টাকা, মোবাইলসহ মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে মেহমান আসবে বলে বাড়ি থেকে বের হয়ে উধাও হয়ে যায় ওই প্রতারক।

ভুক্তভোগী ওই নারী জানান, হৃদয় আমার সাথে প্রেমের অভিনয় করে আমাকে বিয়ে করে। বিয়ের পরেরদিন সে কৌশলে আমার ঘরে থাকা টাকা, স্বর্ণালংকার, মোবাইলসহ মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে পালিয়ে গেছে। আমি এই প্রতারকের বিচার চাই। আমার স্বামী কয়েক বছর ধরে মারা গেছেন। নতুন ঘর-সংসারের আশায় আমি ওকে বিয়ে করেছি। ও যে আমার সাথে এমন প্রতারণা করবে আমি বুঝতে পারি নি।

শিবচর থানা অফিসার ইনচার্জ মো. মিরাজ হোসেন জানান, এ ঘটনায় ভুক্তভোগী পরিবারের পক্ষ থেকে কেউ কোন লিখিত অভিযোগ দেয়নি। লিখিত অভিযোগ পেলে আমরা ব্যবস্থা নেব।



মন্তব্য চালু নেই